মুশির্দাবাদ

জেলা পরিষদের আসন সংখ্যা ৭০ টি পঞ্চায়েত সমিতিতে আসন সংখ্যা ৪৪৭ গ্রাম পঞ্চায়েতে আসন সংখ্যা ৪২৪৭ টি পঞ্চায়েত সমিতির সংখ্যা ২৬ টি গ্রাম পঞ্চায়েতের সংখ্যা ২৫৪ টি

Updated: Jul 9, 2013, 04:25 PM IST

সকাল ৭টা থেকে শুরু হয়েছে ভোটগ্রহণ।
পুলিসের লাঠি চালানোকে ঘিরে উত্তেজনা ছড়াল বহরমপুরের রাধারঘাট এক নম্বর গ্রামপঞ্চায়েতের একুশ নম্বর বুথে। অভিযোগ, কংগ্রেস ও তৃণমূল কংগ্রেস সমর্থকদের বচসা থামাতে পুলিস লাঠি চালায়। লাঠির ঘায়ে আহত হন কয়েকজন ভোটার। এরপরই পুলিসকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখানো হয়। পরে বিশাল পুলিস বাহিনী গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।
মুর্শিদাবাদের জিয়াগঞ্জ ব্লকের হাসানপুর এলাকায় গুলিবিদ্ধ হলেন দুই সিপিআইএম কর্মী। মন্টু শেখ ও সেন্টু শেখ নামে দুই সিপিআইএম কর্মীর পায়ে গুলি লাগে। তাদের হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। কংগ্রেস কর্মী সমর্থকরাই গুলি চালিয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন আক্রান্ত সিপিআইএম কর্মীরা।
ডোমকলে সিপিআইএম ও তৃণমূল একসঙ্গে সন্ত্রাস চালিয়েছে। কেন্দ্রীয় বাহিনীকে জেলায় সেভাবে ব্যবহার করেনি প্রশাসন। এই অভিযোগ করেছেন  রেলপ্রতিমন্ত্রী অধীর চৌধুরী।
ছাপ্পা ভোটে বাধা দেওয়ায় ব্যালট পেপার ছিঁড়ে বুথে তাণ্ডব চালানোর অভিযোগ উঠল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে। বেলডাঙার বেবুনবাড়ি গ্রামপঞ্চায়েতের সতেরো নম্বর বুথে সকাল থেকেই ছাপ্পা ভোট চলছিল বলে অভিযোগ। পরে খবর পেয়ে  ভোটকেন্দ্রে পৌঁছে বাধা দেয় পুলিস। এরপরই ব্যালট পেপার ছিঁড়ে ফেলে বুথে তাণ্ডব চালায় কংগ্রেস কর্মী সমর্থকরা।  
পুলিসের লাঠি চালানোকে ঘিরে উত্তেজনা ছড়াল বহরমপুরের রাধারঘাট এক নম্বর গ্রামপঞ্চায়েতের একুশ নম্বর বুথে। অভিযোগ, কংগ্রেস ও তৃণমূল কংগ্রেস সমর্থকদের বচসা থামাতে পুলিস লাঠি চালায়। লাঠির ঘায়ে আহত হন কয়েকজন ভোটার। এরপরই পুলিসকে ঘিরে বিক্ষোভ দেখানো হয়। পরে বিশাল পুলিস বাহিনী গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।
জেলা পরিষদের আসন সংখ্যা ৭০ টি
পঞ্চায়েত সমিতিতে আসন সংখ্যা ৪৪৭
গ্রাম পঞ্চায়েতে আসন সংখ্যা ৪২৪৭ টি
পঞ্চায়েত সমিতির সংখ্যা ২৬ টি
গ্রাম পঞ্চায়েতের সংখ্যা ২৫৪ টি
গত বছরে জেলা পরিষদ দখল করে বামফ্রন্ট (বামফ্রন্ট-৩২ কংগ্রেস-৩১)

মোট ভোটার-৩৯,৭,০১৭
পুরুষ ভোটার-২০,৩৯,১৭১
মহিলা ভোটার-১৮,৭৭,৮৪৬
মোট বুথ-৪৯১০

পঞ্চায়েত ইস্যু:
১)নদী ভাঙন
২)কৃষি ও কৃষক
৩)পাট চাষি ও তার সমস্যা
৪)বিড়ি শ্রমিক ও পঞ্চায়েত
৫)সীমান্ত সমস্যা
৬)স্বনির্ভর গোষ্ঠীর অবস্থা
৭)কান্দী মাস্টার প্ল্যান
৮)সংখ্যালঘু সমস্যা
৯)১০০ দিনের কাজ না পেয়ে বাইরে যায় মানুষেরা
১০)পেনশন আটকে মাসের পর মাস, প্রশাসনের এ নিয়ে কার্যত কোনো হেলদোল নেই
১১)ভেঙ্গে পড়েছে গ্রামীণ বিকেন্দ্রীকরণ ব্যাবস্থা
১২)পঞ্চায়েত কার্যত কর্মহীন