বেলা বাড়তেই সন্ত্রাসের কেন্দ্রস্থল উঃ ২৪ পরগনা

Last Updated: Friday, July 19, 2013 - 12:10

অবাধ ও সুষ্ঠু ভোটের দাবিতে শ্যামনগরে রেল অবরোধ করলেন বাম সমর্থকরা। অবরোধ চলছে নৈহাটিতেও। বেলা গড়াতেই উত্তর ২৪ পরগনার বিভিন্ন জায়গা থেকে সন্ত্রাস আর শাসক দলের বাইক বাহিনীর অত্যাচারের খবর আসতে শুরু করছে।
উ: ২৪ পরগনার বর্তমান পরিস্থিতি একনজরে-
ব্যাপক সন্ত্রাসের অভিযোগ উঠল উত্তর চব্বিশ পরগনার ভোটে। বিলকান্দা এক নম্বর ব্লকে তেঘড়িয়ার শশীভূষণ নিম্ন বুনিয়াদি বিদ্যালয়ে ভোটগ্রহণ চলাকালীন তৃণমূলের বাইক বাহিনী হামলা চালায় বলে অভিযোগ। রিভলবার দেখিয়ে ভোটারদের মারধর করা হয় বলে অভিযোগ।  মহিলা ভোটারদের ধর্ষণের হুমকি দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। গুরুতর আহত অবস্থায় পানিহাটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে বেশ কয়েকজনকে।  বিলকান্দায় গুলি চলেছে বলে অভিযোগ সিপিআইএমের। 
বাদুড়িয়ার তিনটি বুথ দখল করতে গিয়ে পুলিসের সঙ্গে সংঘর্ষ হয় তৃণমূল কর্মী সমর্থকদের। ভোটগ্রহণ বেশকিছুক্ষণ বন্ধ থাকে। বারাসতের  কদম্বগাছির শিবতলায় বিভিন্ন বুথে  কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ান না থাকায় এলাকায় বাইক বাহিনী দাপিয়ে বেড়াচ্ছে বলে অভিযোগ। বেড়গুম পঞ্চায়েত এলাকায় বেলিনি গ্রামে সিপিআইএমের পতাকা পুড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। খড়দহের ঈশ্বরীপুর বন্দিপুর এলাকায় গুলি ও ব্যাপক বোমাবাজির অভিযোগ উঠেছে। 
জেলাজুড়ে মোট ৯৮ জন বামপ্রার্থী ভোট দিতে যেতে পারছেন না বলে অভিযোগ জেলা বামফ্রন্টের। আক্রান্ত হয়েছেন ইছাপুর নীলগঞ্জ পঞ্চায়েতের বামপ্রার্থী বুড়োগোপাল দাস। বারাসত দুই  ব্লকের গোলাবাড়ি-পুটুড়িয়া এলাকায় আক্রান্ত  হয়েছেন নির্দল প্রার্থী ইজাজুল হক। তাঁকে বারাসত হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অভিযোগের তির তৃণমূলের দিকে।  
উত্তর চব্বিশ পরগনার বিভিন্ন বুথ থেকে বিরোধী এজেন্টদের বের করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। আমডাঙার কুচিয়াপাড়া, বিলকান্দা একশো ছিয়াত্তর, একশো সাতাত্তর, হাড়োয়ার কুলটি গ্রামপঞ্চায়েতের ১৯টি বুথ এবং বারাকপুর পঞ্চায়েতের  সবকটি বুথে বিরোধী এজেন্টদের বের করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। শিবদাসপুরে সিপিআইএম প্রার্থী তরুলতা মজুমদারের  স্বামী আক্রান্ত হয়েছেন বলে অভিযোগ।
হাবড়া এক নম্বর ব্লকের বেড়গুম ও মেটেগাছা এলাকার বিভিন্ন বুথে বিরোধী এজেন্টদের বের করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে  তৃণমূল  কংগ্রেসের বিরুদ্ধে। বিরোধী এজেন্টদের বের করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে আমডাঙার বেড়াবেড়ি, বোদাই, রতনপুর ও তাড়াবেড়িয়া এলাকায়।  বারাসতের এক নম্বর বয়রা এলাকা ও শাসনের কোনও বুথেও বিরোধী এজেন্টদের বসতে দেওয়া হচ্ছে না বলে  অভিযোগ উঠেছে। কামারগাছি দক্ষিণের শিশু শিক্ষা নিকেতনে বিরোধী এজেন্টদের বের করে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে।   
নির্বাচন কমিশনের চেষ্টা সত্বেও তৃতীয় দফাতেও বহু কেন্দ্রে দেখা মিলল না কেন্দ্রীয় বাহিনীর। উত্তর ২৪ পরগনার বারাসত এক ও দুই নম্বর ব্লকের বিভিন্ন বুথে নিরাপত্তার দায়িত্ব সামলাচ্ছেন রাজ্য পুলিসের কনস্টেবলরা। আমডাঙার কুচিয়াপাড়াতেও বুথের দায়িত্বে দেখা যায়নি কেন্দ্রীয় বাহিনীর জওয়ানদের।
পঞ্চায়েত ভোট বয়কট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে প্রতিবাদী কামদুনি।



First Published: Friday, July 19, 2013 - 13:52


comments powered by Disqus