এবার 'সেন্সর' কেবল্ চ্যানেলে?

সংবাদপত্রের জন্য এবার সম্ভবত ফতোয়া জারি হতে চলেছে চ্যানেলেও। রাজ্যের সবকটি জেলার কেবল্ অপারেটর সম্পর্কে যাবতীয় তথ্য পাঠানোর নির্দেশিকা জারি করল রাজ্য সরকার। কেবল্ অপারেটরদের নিয়ে নির্দেশিকা ইতিমধ্যে রাজ্যের সবকটি জেলার তথ্য ও সংস্কৃতি আধিকারিকদের কাছে পৌঁছে গেছে।

Updated: Mar 31, 2012, 01:35 PM IST

সংবাদপত্রের জন্য এবার সম্ভবত ফতোয়া জারি হতে চলেছে চ্যানেলেও। রাজ্যের সবকটি জেলার কেবল্ অপারেটর সম্পর্কে যাবতীয় তথ্য পাঠানোর নির্দেশিকা জারি করল রাজ্য সরকার। কেবল্ অপারেটরদের নিয়ে নির্দেশিকা সম্পর্কিত চিঠি ইতিমধ্যেই রাজ্যের সবকটি জেলার তথ্য ও সংস্কৃতি আধিকারিকদের কাছে পৌঁছে গেছে।
জেলায় যত কেবল অপারেটর রয়েছেন, তাদের প্রত্যেকের সম্পর্কে যাবতীয় তথ্য পাঠাতে বলা হয়েছে নির্দেশিকায়। জরুরি ভিত্তিতে এই তথ্য পাঠানোর শেষ তারিখ ছিল গত ২৮ মার্চ। তথ্য ও সংস্কৃতি দফতর বর্তমানে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাতেই রয়েছে। প্রসঙ্গত, ইতিমধ্যেই সরকারের নির্দিষ্ট করে দেওয়া কয়েকটি সংবাদপত্রই সরকারি গ্রন্থাগারে রাখতে বলে নির্দেশিকা জারি করেছে রাজ্য সরকার।
যদিও বিষয়টি নিয়ে মহাকরণ সূত্রে খবর, গ্রাহক সংখ্যা জানতেই কেবল অপারেটরদের চিঠি দেওয়া হয়েছে। সরকারের ব্যাখ্যা, জুলাই মাসের মধ্যে ডিজিটাল পদ্ধতি চালু করতে হবে বলে কেন্দ্র রাজ্যকে নির্দেশ দিয়েছে। সেই কারণে, এমএসও-দের নিয়ে রাজ্য সরকারের কেবল অপারেটর সংক্রান্ত কমিটি বৈঠক করে। ডিজিটাল পদ্ধতি চালু করতে গেলে গ্রাহক সংখ্যা জানা প্রয়োজন। তাই কেবল্ অপারেটরদের চিঠি দিয়ে, কোন জেলায় কত গ্রাহক রয়েছে তা জানতে চাওয়া হয়েছে বলেও রাজ্য সরকার সূত্রে খবর।