পঞ্চায়েত মনোনয়ন: হুমকির পর গুলিবিদ্ধ ৩ সিপিআইএম কর্মী

পঞ্চায়েতে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের জন্য হুমকির পর এবারে গুলিবিদ্ধ হলেন তিন সিপিআইএম কর্মী। বেধড়ক মারে আহত হয়েছেন আরও ১২ জন। ঘটনাটি ঘটনাটি ঘটেছে বীরভূমের দুবরাজপুরে। অভিযোগ কুড়ি মিনিট ধরে গোটা এলাকায় কার্যত তাণ্ডব চালায় তৃণমূলের বাইক বাহিনী। লোহার রড, বাঁশ দিয়ে মারা হয় বামকর্মী সমর্থকদের। মারধরে গুরুতর জখম হয় দ্বাদশ শ্রেণীর এক ছাত্রও। এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কেউ গ্রেফতার হয়নি।

Updated: Jun 13, 2013, 11:22 AM IST

পঞ্চায়েতে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের জন্য হুমকির পর এবারে গুলিবিদ্ধ হলেন তিন সিপিআইএম কর্মী। বেধড়ক মারে আহত হয়েছেন আরও ১২ জন। ঘটনাটি ঘটনাটি ঘটেছে বীরভূমের দুবরাজপুরে। অভিযোগ কুড়ি মিনিট ধরে গোটা এলাকায় কার্যত তাণ্ডব চালায় তৃণমূলের বাইক বাহিনী। লোহার রড, বাঁশ দিয়ে মারা হয় বামকর্মী সমর্থকদের। মারধরে গুরুতর জখম হয় দ্বাদশ শ্রেণীর এক ছাত্রও। এই ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কেউ গ্রেফতার হয়নি।
পঞ্চায়েতে মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের জন্য বীরভূমের হেতমপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের বামপ্রার্থীদের হুমকি দেওয়া চলছিলই। কিন্তু বুধবার গোটা গ্রামে কার্যত তাণ্ডব চালাল তৃণমূলের বাইক বাহিনী। ঘটনায় গুলিবিদ্ধ হন সিপিআইএম কর্মী শেখ গোলাম, শেখ মড়াই ও শেখ জাহির। মারধরে আহত হয় দ্বাদশ শ্রেণীর এক ছাত্রও। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক। আহত হন আরও ১২ জন। সকলেই ভর্তি  সিউড়ি হাসপাতালে।
 
বুধবার দুপুর তিনটে নাগাদ লাঠি, বোমা, বন্দুক নিয়ে তৃণমূলের বাইক বাহিনী গ্রামে ঢোকে বলে অভিযোগ। বামপ্রার্থীদের বাড়ি লক্ষ্য করে ছোঁড়া হয় বোমা, গুলি। প্রায় কুড়ি মিনিট ধরে চলে তাণ্ডব। শেষে এলাকার বাসিন্দারা প্রতিরোধ গড়ে তোলেন। তাদের লক্ষ্য করে বোমা ছোঁড়ে বাইক বাহিনী। শেষে পিছু হঠে তারা। গ্রামবাসীদের অভিযোগ, বাইক বাহিনী তাণ্ডব চললেও পুলিসের দেখা মেলেনি।