পীরজাদার তোপ সরকারকে

পীরজাদার তোপ সরকারকে

পীরজাদার তোপ সরকারকে বিধানসভা নির্বাচনের ঠিক আগে একই মঞ্চে দু`জনকে বহুবারই দেখা গেছে একসঙ্গে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও ফুরফুরা শরিফের পীরজাদা তহা সিদ্দিকি। বিরোধী দলনেত্রী থেকে মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পরেই সম্পর্কে ফাটল। ফুরফুরা শরিফের পীরজাদার অভিযোগ, সংখ্যালঘুদের ভোটব্যাঙ্ককে নিজের দিকে আনতে শুধুই প্রতিশ্রুতির বন্যা ছুটিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। বাস্তবায়িত হয়নি একটিও। হাওড়া লোকসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচনেও শাসকদল সংখ্যালঘু ভোটব্যাঙ্ক বাড়াতে সেই একই পথে হাঁটছে বলে অভিযোগ ফুরফুরা শরিফের পীরজাদার।

১৩ এপ্রিল, ২০১০। ডানকুনি ফুরফুরা শরিফের রেলপ্রকল্পের শিলান্যাস:
 
আজকের মুখ্যমন্ত্রী তখন কেন্দ্রীয় রেল মন্ত্রী। সামনেই ২০১১-র বিধানসভা নির্বাচন। সংখ্যালঘু ভোট ব্যাঙ্ককে নিজের দিকে আনতে রেলমন্ত্রী  তথা বিরোধী দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের মুখে শোনা গেছে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের জন্য একের পর এক উন্নয়নের কর্মসূচি। বহুবার একই মঞ্চে দেখা গেছে ফুরফুরা শরিফের পীরজাদা তহা সিদ্দিকি ও বিরোধী দলনেত্রীকে।
 
দু`বছর ঘুরতে না ঘুরতেই ঘনিষ্ঠতার সম্পর্ক উধাও। বিরোধী দলনেত্রী থেকে মুখ্যমন্ত্রীর আসনে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ১৬ জানুয়ারি, ২০১৩ ধর্মতলায় মুখ খুললেন তহা। মুখ্যমন্ত্রীকে সরাসরি `বিশ্বাসভঙ্গ` বলে কটাক্ষ পীরজাদার।

আরও একটা নির্বাচন দোরগোড়ায়। ২ জুলাই হাওড়া  লোকসভা কেন্দ্রের উপনির্বাচন। প্রার্থীর নাম ঘোষণা করেও শেষ মুহুর্তে প্রার্থী পদ প্রত্যাহার করেছে বিজেপি। তৃণমূলকে সুবিধা করে দিতেই কী বিজেপির এই প্রার্থী পদ প্রত্যাহার? গোপনে তৃণমূল-বিজেপি সন্ধি? ফের মুখ খুলেছেন তোহা।

First Published: Saturday, May 25, 2013, 11:47


comments powered by Disqus