বাবাকে না পেয়ে দুই অন্ধ মেয়েকে পেটাল পুলিস

অভিযুক্তের খোঁজে এসে, অভিযুক্তের মেয়েকে মারধরের অভিযোগ উঠল পুলিসের বিরুদ্ধে। অভিযুক্তকে গ্রেফতারের জন্য পুলিসকে নির্দেশ দেওয়ার অভিযোগ তুলেছে অভিযুক্তের বাড়ির লোকজন ঘটনা বর্ধমানের কালনায়। পুলিসের বিরুদ্ধে মারধরের অভিযোগে রাস্তা অবরোধ করে অভিযুক্ত সিপিআইএম নেতা মোবিন হোসেনের আত্মীয় সমর্থকরা। এদিকে তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন পুলিসের হয়ে সওয়াল করেন মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ।

Updated: Sep 14, 2013, 11:56 PM IST

অভিযুক্তের খোঁজে এসে, অভিযুক্তের মেয়েকে মারধরের অভিযোগ উঠল পুলিসের বিরুদ্ধে। অভিযুক্তকে গ্রেফতারের জন্য পুলিসকে নির্দেশ দেওয়ার অভিযোগ তুলেছে অভিযুক্তের বাড়ির লোকজন ঘটনা বর্ধমানের কালনায়। পুলিসের বিরুদ্ধে মারধরের অভিযোগে রাস্তা অবরোধ করে অভিযুক্ত সিপিআইএম নেতা মোবিন হোসেনের আত্মীয় সমর্থকরা। এদিকে তাঁর বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ অস্বীকার করেছেন পুলিসের হয়ে সওয়াল করেন মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ।
বাবার নামে অভিযোগ, বাবাকে না পেয়ে দৃষ্টিহীন দুই মেয়েকে পেটাল পুলিস। ভাঙচুর করা হল বাড়িতেও। কালনার পূর্বস্থলী থানার পুলিসের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ তুলেছেন গ্রাম পঞ্চায়েত সদস্য মোবিন হোসেনের দৃষ্টিহীন দুই মেয়ে। পুলিসি অত্যাচারের প্রতিবাদে শনিবার কালনা-কাটোয়া সড়ক অবরোধ করেন মোবিন হোসেনের লোকজন। মোবিন হোসেন নসরত্পুর গ্রাম পঞ্চায়েতের সদস্য। এলাকার দাপুটে সিপিআইএম নেতা হিসেবেই পরিচিত। তাঁর বিরুদ্ধে এলাকায় সন্ত্রাস চালানোর অভিযোগ রয়েছে। সেই কারণে মোবিনের বাড়িতে আচমকা হানা দেয় পুলিস।
বিষয়টি তাঁর জানা নেই বলে দাবি করেছেন মন্ত্রী স্বপন দেবনাথ। পুলিসি জুলুমের প্রতিবাদে প্রায় সাড়ে ৩ ঘণ্টা ধরে অবরোধ চলে। পরে পুলিস তদন্তের আশ্বাস দিলে অবরোধ ওঠে।