দিদির ডাকে গ্রামের ভিটেয় প্রণব

Last Updated: Saturday, June 23, 2012 - 14:00

জাতীয় রাজনীতিতে চাণক্য বলেই পরিচিত। কিন্তু আদতে তিনি গ্রামের ছেলে। রাষ্ট্রপতি নির্বাচনে প্রার্থী ঘোষিত হওয়ার পর কীর্ণহারে গ্রামের বাড়ির পথে রওনা দেওয়ার আগে সেকথাই বললেন স্মৃতি-ভারাক্রান্ত প্রণব মুখোপাধ্যায়। রাষ্ট্রপতি পদে কংগ্রেসের প্রার্থী মনোনীত হয়ে প্রথমবার রাজ্যে এসেই এদিন শিকড়ের টানে মিরিটির পৈত্রিক ভিটেয় পা দিলেন প্রণব মুখোপাধ্যায়। শুক্রবার রাত নটা নাগাদ কলকাতা বিমানবন্দরে নেমে ঢাকুরিয়ায় নিজের বাড়িতে যান তিনি। সেখান থেকে আজ সকালে সড়কপথে বীরভূমের কীর্ণাহারের মিরিটি গ্রামে নিজের পৈতৃক বাড়িতে আসেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী।
গ্রামের ছেলে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের দৌড়ে। কীর্ণাহারের মিরাটি গ্রামে এখন উত্‍‍সবের ছোঁয়া। প্রতিবছরই দুর্গাপুজোয় এখনও নিয়ম করে পুজোর কটা দিন কাটিয়ে যান কংগ্রেসের ক্রাইসিস ম্যানেজার। তবে এবারের আসাটা হঠাত্‍‍ করেই। রাষ্ট্রপতি নির্বাচনের আগে দিদি অন্নপূর্ণা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আশীর্বাদ নিতেই মিরিটি এসেছেন প্রণব মুখোপাধ্যায়। পাশাপাশি রথযাত্রা উপলক্ষে পারিবারিক দুর্গাপুজোর প্রতিমার কাঠামো নির্মাণের প্রারম্ভিক আচারের অংশ নেবেন তিনি।
কমবয়সে মাতৃহারা হওয়ার পর দিদি অন্নপূর্ণা দেবীর স্নেহ-মমতার ছায়া ঘিরে থেকেছে মুখার্জিবাড়ির `পল্টু`কে। আর তাই দিদি দেখতে চেয়েছেন শুনেই অনেক গুরুত্বপূর্ণ কর্মসূচি কাটছাঁট করেই মিরিটি আসার সিদ্ধান্ত নিয়ে নেন প্রণববাবু। ভাই আসছে। অন্তত একটু চোখের দেখাতো হবে, সেই খুশিতে আত্মহারা দিদিও। প্রণববাবুর আগমন উপলক্ষে নতুন রঙের পোঁচ পড়েছে তাঁর মিরিটির বাড়িতে। রাষ্ট্রপতি পদপ্রার্থী প্রণববাবুর ছবি দিয়ে সাজানো হয়েছে এলাকার রাস্তাঘাট। দীর্ঘদিন পর উত্সাহের বান ডেকেছে জেলার কংগ্রেস নেতা-কর্মীদের মধ্যেও। প্রণববাবুর মঙ্গল কামনায় শুক্রবার তারাপীঠ মন্দিরে পুজো ও যজ্ঞ করেছেন বীরভূম জেলা কংগ্রেসের নেতৃত্ব।



First Published: Saturday, June 23, 2012 - 14:00


comments powered by Disqus