আতঙ্কিত সারা রাজ্যের চিটফান্ডের আমানতকারীরা

Last Updated: Wednesday, April 24, 2013 - 21:21

সারদা কাণ্ডের জেরে আতঙ্কে রাজ্যের অন্যান্য চিটফান্ডের আমানতকারীরা। টাকা ফেরতের দাবিতে কোথাও বিক্ষোভ কোথাও আবার চিটফান্ড অফিসেই তালা ঝুলিয়েছেন আমানতকারীরা। এই অবস্থায় একটি সংবাদ পত্রে বিজ্ঞাপন দিয়ে আতঙ্কিত না হওয়ার আবেদন করেছে রোজভ্যালী কর্তৃপক্ষ।
সর্বনাশের কারবারে সর্বশান্ত রাজ্যের কয়েকলক্ষ মানুষ। বিক্ষোভে উত্তাল রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত। আতঙ্কে রাজ্যের অন্যান্য চিটফান্ডের আমানতকারীরাও। বুধবার শিলিগুড়িতে বিক্ষোভ মিছিল করেন অ্যানেক্স হাউসিংয়ের আমানতকারীরা। মহকুমা শাসকের কাছে স্মারক লিপিও জমা দেন তাঁরা। এরপর মিছিল করে উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রীর দফতরের সামনে জড়ো হন আন্দোলনকারীরা। ক্ষুব্ধ এজেন্টরা উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করার দাবি জানান।
বিক্ষোভে অংশ নেন সুরাহা মাইক্রো ফাইন্যান্স এবং সারদার প্রতারিত এজেন্ট ও গ্রাহকরাও। তিনটি চিটফান্ড সংস্থার কয়েকশো এজেন্টের বিক্ষোভে হিলকার্ট রোডে উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। প্রায় দু ঘন্টার বেশি সময় ধরে চলে পথ অবরোধ। সারদা কাণ্ডের জেরে রাজ্যের বিভিন্ন চিটফান্ডগুলি থেকে টাকা তুলে নেওয়ার হিড়িক পড়েছে। সব আমানতকারীই মেয়াদ সম্পূর্ণ হওয়ার আগেই টাকা তুলে নিতে চাইছেন। অভিযোগ দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার ডায়মন্ডহারবারে টাকা তোলার দাবি জানালে আমানতকারীদের মারধর করা হয়। অভিযোগ কপাটের হাটে জীবনদ্বীপ নামে একটি চিটফান্ড অফিসে আমানতকারীরা টাকা চাইতে গেলে তাদের মারধর করে তাড়িয়ে দেওয়া হয়। এরপরই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে গোটা এলাকা। ওই চিটফান্ড অফিসের কর্মীদের আটকে তালা লাগিয়ে দেন ক্ষুব্ধ আমানতকারীরা।
একই ঘটনা ঘটে টাওয়ার গ্রুপের ডায়মন্ডহারবার শাখায়। অধিকাংশ আমানতকারীদের অভিযোগ টাকা সম্পূর্ণ হওয়ার পরও মিলছে না টাকা। ঘরছাড়া এজেন্টরা। দুর্গাপুরে সিটি সেন্টারে রোজ ভ্যালি অফিসের সামনে বিক্ষোভ দেখান আমানতকারীরা। মেয়াদ সম্পূর্ণ হওয়ার আগেই টাকা তুলে নেওয়ায় কেটে নেওয়া হয়েছে একটা অংশ। পুরো টাকার দাবিতে রোজ ভ্যালি অফিসের সামনে বিক্ষোভ দেখান আমানতকারীরা।



First Published: Wednesday, April 24, 2013 - 21:21


comments powered by Disqus