সপ্তম পে কমিশনের পথে কেন্দ্রীয় সরকার, কিন্তু উন্নতি নেই রাজ্য সরকারী কর্মচারীদের মাস মাহিনায়

Last Updated: Wednesday, September 25, 2013 - 22:00

কেন্দ্রীয় সরকার সপ্তম বেতন কমিশন গড়ছে। কিন্তু রাজ্য সরকারি কর্মীরা পড়ে রইলেন সেই তিমিরেই। রাজ্যে ২০০৬ পঞ্চম বেতন কমিশন গঠিত হয়েছিল।  নতুন পে কমিশন দূরের কথা, বকেয়া মহার্ঘভাতা মেটানো নিয়ে টু  শব্দ নেই রাজ্য  সরকারের। কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীরা ৮০% হারে মহার্ঘভাতা পেলেও রাজ্য সরকারি কর্মীরা পাচ্ছেন মাত্র ৫২%।এই ফারাকে বিস্তর ক্ষোভ জানিয়েছে রাজ্য সরকারি কর্মী সংগঠন।  নিয়ম অনুযায়ী কেন্দ্রীয় সরকার মহার্ঘ্যভাতা ঘোষণা করলে রাজ্যগুলিকেও সেই পরিমাণ মহার্ঘ্যভাতা দিতে হয়। কিন্তু মাত্র এগারোটি রাজ্য  কেন্দ্রীয় সরকারের সমতুল্য ৮০% মহার্ঘ্যভাতা দিচ্ছে।
কেন্দ্রীয় সরকারের হারে মহার্ঘভাতা দিচ্ছে অন্ধ্রপ্রদেশ, অসম, বিহার, ঝাড়খণ্ড, ছত্তিশগড়, দিল্লি, গুজরাত,তামিলনাড়ু, মহারাষ্ট্র, উত্তরপ্রদেশ ও ওড়িশা।
 
 অরুনাচলপ্রদেশ, হরিয়ানা, মধ্যপ্রদেশ, রাজস্থান, পাঞ্জাব, হিমাচলপ্রদেশ, গোয়া
 কর্ণাটক দিচ্ছে ৫৮ %।
 
পশ্চিমবঙ্গে সরকারি কর্মীরা পাচ্ছেন মাত্র ৫২% মহার্ঘ্যভাতা যা তাঁদের প্রাপ্যের তুলনায় ৩৮% কম।
 
দীর্ঘদিন ধরেই সরকারি কর্মীরা ন্যায্য পাওনার দাবিতে আন্দোলন করছেন। কিন্তু আর্থিক কারণে বকেয়া মহার্ঘভাতা দেওয়া সম্ভব হচ্ছ না বলে একাধিকবার জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
 
বুধবার কেন্দ্রীয় সরকার সপ্তম বেতন কমিশন গড়ার কথা ঘোষণা করায় রাজ্য সরকারি কর্মীদের ক্ষোভ আরও বেড়েছে। কারণ, রাজ্য সরকারি কর্মীরা বর্তমানে পঞ্চম বেতন কমিশনের সুপারিশ অনুযায়ী  বেতন পাচ্ছেন। কর্মী সংগঠন  নবপর্যায়ের সাধারণ সম্পাদক সমীর মজুমদারের অভিযোগ,  প্রতিমাসে রাজ্য সরকারি কর্মীরা অন্তত ৩০% কম বেতন পাচ্ছেন ।
 
 



First Published: Wednesday, September 25, 2013 - 22:00


comments powered by Disqus