রাত পোহালেই দোল, বসন্ত উৎসবের আগমনে সেজে উঠেছে শান্তিনিকেতন

আগামীকাল রাজ্যজুড়ে পালিত হবে দোল। শান্তিনিকতেন বসন্ত উত্‍সবের প্রস্তুতিও সম্পূর্ণ। মেলার মাঠ নয়, গৌড় প্রাঙ্গণেই এবার হবে সকাল ও সন্ধের অনুষ্ঠান। বিশেষ নজর দেওয়া হচ্ছে নিরাপত্তার বিষয়ে। মেলা প্রাঙ্গণ জুড়ে বসানো হচ্ছে ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা। বসন্ত উত্‍সবকে কেন্দ্র করে প্রস্তুতি চূড়ান্ত শান্তিনিকেতনে। ইতিমধ্যেই পৌছে গিয়েছেন পর্যটকেরা। উত্‍সবের আগের রাতে রীতিমতো জমজমাট বোলপুর ও শান্তি নিকেতন চত্বর।

Updated: Mar 15, 2014, 11:46 PM IST

আগামীকাল রাজ্যজুড়ে পালিত হবে দোল। শান্তিনিকতেন বসন্ত উত্‍সবের প্রস্তুতিও সম্পূর্ণ। মেলার মাঠ নয়, গৌড় প্রাঙ্গণেই এবার হবে সকাল ও সন্ধের অনুষ্ঠান। বিশেষ নজর দেওয়া হচ্ছে নিরাপত্তার বিষয়ে। মেলা প্রাঙ্গণ জুড়ে বসানো হচ্ছে ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা। বসন্ত উত্‍সবকে কেন্দ্র করে প্রস্তুতি চূড়ান্ত শান্তিনিকেতনে। ইতিমধ্যেই পৌছে গিয়েছেন পর্যটকেরা। উত্‍সবের আগের রাতে রীতিমতো জমজমাট বোলপুর ও শান্তি নিকেতন চত্বর।

এবার সকাল এবং সন্ধে, দুটো অনুষ্ঠানই হবে গৌড় প্রাঙ্গনে। গত বছর প্রথা ভেঙে বসন্ত উত্‍সবের অনুষ্ঠান হয়ে হয়েছিল শান্তিনিকেতন মেলার মাঠে। তবে এবার সিদ্ধান্ত বদল করে গৌড় প্রঙ্গণেই উত্‍সব ফিরিয়ে আনার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন কর্তৃপক্ষ। নিরাপত্তার বিষয়ে এবার নেওয়া হচ্ছে বাড়তি সতর্কতা। মোতায়েন করা হয়েছে তিনশজন পুলিস কর্মী। রবিবার সকাল সাত
টায় বৈতালিকের মধ্যে দিয়ে শুরু হবে মূল অনুষ্ঠান। চলবে বেলা দশটা পর্যন্ত। সন্ধেয় অনুষ্ঠান শুরু হবে সাতটা নাগাদ। রাতে সাড়ে আটটার মধ্যে অনুষ্ঠান শেষ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ। গোটা উত্‍সব প্রাঙ্গণ ঘিরে এবার নজরদারির জন্য থাকছে ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরা। অন্যবারের মত এবারও পলাশ ফুল এবং প্লাস্টিক ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা বজায় থাকছে।