শিক্ষিকার মারে মৃত্যু তৃতীয় শ্রেণীর ছাত্রের

শিক্ষিকার প্রহার কেড়ে নিল এক শিশুর প্রাণ। ব্যাগ ছোঁড়াছুঁড়ির শাস্তি হিসাবে আট বছরের বাপি জোয়ারদারের মাথা দেওয়ালে ঠুকে দিলেন শিক্ষিকা চম্পারানি মণ্ডল। দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার নির্দেশখালি গ্রামে শিশুশিক্ষা কেন্দ্রের ঘটনা এটি। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছ চলতি মাসের ১৫ তারিখ তৃতীয় শ্রেণীর বাপির মাথা সজোরে দেওয়ালে ঠুকে দেন ওই শিক্ষিকা। শুধু তাই নয়, তিনি বাপির কানেও আঘাত করেন বলে অভিযোগ ছাত্রের পরিবারের।

Updated: May 17, 2013, 04:03 PM IST

শিক্ষিকার প্রহার কেড়ে নিল এক শিশুর প্রাণ। ব্যাগ ছোঁড়াছুঁড়ির শাস্তি হিসাবে আট বছরের বাপি জোয়ারদারের মাথা দেওয়ালে ঠুকে দিলেন শিক্ষিকা চম্পারানি মণ্ডল। দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার নির্দেশখালি গ্রামে শিশুশিক্ষা কেন্দ্রের ঘটনা এটি। প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছ চলতি মাসের ১৫ তারিখ তৃতীয় শ্রেণীর বাপির মাথা সজোরে দেওয়ালে ঠুকে দেন ওই শিক্ষিকা। শুধু তাই নয়, তিনি বাপির কানেও আঘাত করেন বলে অভিযোগ ছাত্রের পরিবারের।
গুরুতর আহত অবস্থায় বাপিকে প্রথমে ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে শিশুটিকে কলকাতায় এসএসকেএম হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। তাকে। আজ ভোর পাঁচটা নাগাদ মৃত্যু হয় তার। তার মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়তেই এলাকাবাসীরা বিক্ষোভ দেখাতে থাকে।
ওই শিক্ষিকাকে গ্রেফতার ককরেছে পুলিস। দোষ প্রমাণিত হলে ওই শিক্ষিকার কঠোরতম শাস্তির আশ্বাস দেওয়া হয়েছে সরকারের পক্ষ থেকে।