মালদহে, সিউড়িতে শিক্ষকের `শিকার` ছাত্রীরা

Last Updated: Saturday, August 4, 2012 - 11:59

মালদহের কালিয়াচক এবং বীরভূমের সিউড়িতে ছাত্রীদের শ্লীলতাহানি এবং বিবস্ত্র করে তল্লাসির জোড়া ঘটনায় ফের প্রশ্ন উঠল রাজ্যের স্কুলগুলিতে শিক্ষা ও নিরাপত্তার পরিবেশ নিয়ে। প্রথম ক্ষেত্রে ছাত্রীদের মদ খাইয়ে শ্লীলতাহানির অভিযোগ উঠেছে স্কুল মালিক তথা প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে মালদহের কালিয়াচকের একটি ইংরেজি মাধ্যম আবাসিক স্কুলে। ওষুধ বলে তিন ছাত্রীকে মদ এবং মাদকজাতীয় দ্রব্য খাইয়ে অচৈতন্য করে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ। ছাত্রীদের পরিবারের পক্ষ থেকে থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। ঘটনার পর থেকেই পলাতক অভিযুক্ত স্কুল মালিক।
অন্যদিকে গতকাল বীরভূমের সিউড়ির কালিগতি গার্লস হাইস্কুলের দ্বাদশ শ্রেণির এক ছাত্রীর দেহ পোশাক খুলে তল্লাসি করা হয় বলে অভিযোগ। স্কুলে একটি চুরির ঘটনা ঘটে। সেই ঘটনায় ওই ছাত্রীকে অভিযুক্ত করা হয়। আর সে কারণেই এই তালিবানি তল্লাসি! মানসিকভাবে বিপর্যস্ত ওই ছাত্রী বাড়িতে গোটা ঘটনাটি জানায়। স্কুলের বিরুদ্ধে থানায়  অভিযোগ দায়ের করেছে ছাত্রীর পরিবার। ছাত্রী নিগ্রহের ঘটনায় অভিযুক্ত দুই শিক্ষিকাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। হয়েছে। তাদের থানায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।



First Published: Saturday, August 4, 2012 - 11:59


comments powered by Disqus