তরাই-ডুয়ার্স বন্‌ধ প্রত্যাহার করল বার্লা গোষ্ঠী

Last Updated: Tuesday, April 17, 2012 - 20:05

সরকারের সঙ্গে আলোচনার পর তরাই, ডুয়ার্সে ২ দিনের ডাকা বন্‌ধ স্থগিত রাখল জয়েন্ট অ্যাকশন কো-অর্ডিনেশন কমিটি। মঙ্গলবার মহাকরণে উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী গৌতম দেবের সঙ্গে বৈঠক করেন কমিটির প্রতিনিধিরা। বৈঠকের পর কমিটির প্রতিনিধিরা জানিয়ে দেন, সরকারের কথা রাখতেই ১৮ ও ১৯ এপ্রিল-- ২ দিনের বন্‌ধ থেকে সরে এসেছেন তাঁরা। বন্‌ধ নিয়ে পরবর্তী সিদ্ধান্ত কমিটি নেবে বলেও জানিয়েছেন জন বার্লা গোষ্ঠীর প্রতিনিধিরা। 
জিটিএ-তে মৌজা-অন্তর্ভূক্তি নিয়ে ক্ষোভ রয়েছে তরাই-ডুয়ার্স এলাকায়। মৌজা অন্তর্ভূক্তি ইস্যুতে তরাই-ডুয়ার্সে ৪৮ ঘণ্টা যৌথভাবে বন্‌ধ-এর ডাক দিয়েছিল ডুর্য়াস ও তরাইয়ের গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা এবং আদিবাসী বিকাশ পরিষদের বিক্ষুব্ধ গোষ্ঠীর গড়া জয়েন্ট অ্যাকশন কো-অর্ডিনেশন কমিটি।
বস্তুত, পাহাড়ে এখন পর্যটকের ঢল। এই মরসুমে বন্‌ধ প্রত্যাহার করায়, জয়েন্ট অ্যাকশন কো-অর্ডিনেশন কমিটির মুখ রক্ষা হল বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল। কারণ এই সময় বন্‌ধ হলে কঠিন পরিস্থিতির মধ্যে পড়তে হত তাঁদের। মানুষের কতটা সমর্থন আদতে কমিটির পাশে থাকত, তা নিয়েও সংশয় ছিল। জন বার্লার নেতৃত্বাধীন গোষ্ঠী বন্‌ধ-এর সিদ্ধান্ত থেকে সরে এলেও মুখে কুলুপ এঁটেছে মোর্চা নেতারা। বন্‌ধ প্রত্যাহারের সিদ্ধান্তকে একান্তই বার্লা গোষ্ঠীর সিদ্ধান্ত হিসেবেই তুলে ধরতে চাইছে গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা। রাজনৈতিক মহলের মতে, গত মাসে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে মহাকরণে বৈঠকে মোর্চা নেতারা যে সমঝোতায় পৌঁছেছিলেন, তা থেকে এখনই সরে আসতে চাইছে না মোর্চা নেতৃত্ব। জিটিএ-র মধ্যে তরাই-ডুর্য়াসের অন্তর্ভুক্তিকরণ নিয়েও তাই ধীরে চলো নীতি নিচ্ছেন বিমল গুরুংরা। 



First Published: Tuesday, April 17, 2012 - 20:05


comments powered by Disqus