এবার টার্গেট রেজ্জাক মোল্লা?

সুজন চক্রবর্তীর পর রেজ্জাক মোল্লা শাসকের নিশানায়। ২৯ মার্চ বারুইপুর থানার অধীনে সূর্যপুর গ্রামে একটি বিচিত্রানুষ্ঠানে যান সিপিআইএম বিধায়ক রেজ্জাক মোল্লা। সেখানে তিনি বক্তৃতা দেন। এরপর ওই অনুষ্ঠানে বিদ্যুৎ সংযোজন ছিন্ন করে দেওয়া হয়। অভিযোগ এরপর ওই অনুষ্ঠানে বেছে বেছে সিপিআইএম কর্মীদের মারধর করে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। ঘটনাস্থলে পুলিস পৌঁছালেও পুলিস শুধুমাত্র সিপিআইএম কর্মীদের গ্রেফতার করে বলে অভিযোগ। ৩০ তারিখ ওই অঞ্চলের এক মহিলার বাড়িতে ভাংচুর করা হয়। এই ঘটনায় ১৩জনের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়। এফ আই আরে শেষ নামটি রেজ্জাক মোল্লার।

Updated: Jun 29, 2013, 10:48 AM IST

সুজন চক্রবর্তীর পর রেজ্জাক মোল্লা শাসকের নিশানায়। ২৯ মার্চ বারুইপুর থানার অধীনে সূর্যপুর গ্রামে একটি বিচিত্রানুষ্ঠানে যান সিপিআইএম বিধায়ক রেজ্জাক মোল্লা। সেখানে তিনি বক্তৃতা দেন। এরপর ওই অনুষ্ঠানে বিদ্যুৎ সংযোজন ছিন্ন করে দেওয়া হয়। অভিযোগ এরপর ওই অনুষ্ঠানে বেছে বেছে সিপিআইএম কর্মীদের মারধর করে তৃণমূল আশ্রিত দুষ্কৃতীরা। ঘটনাস্থলে পুলিস পৌঁছালেও পুলিস শুধুমাত্র সিপিআইএম কর্মীদের গ্রেফতার করে বলে অভিযোগ। ৩০ তারিখ ওই অঞ্চলের এক মহিলার বাড়িতে ভাংচুর করা হয়। এই ঘটনায় ১৩জনের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়। এফ আই আরে শেষ নামটি রেজ্জাক মোল্লার।
আর এখানেই তৈরি হয়েছে প্রশ্ন। যেখানে সিপ আই এমের এই বর্ষীয়ান বিধায়ক উপস্থিতই ছিলেন না সেখানে কী ভাবে তাঁর বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগ উঠতে পারে। গৌতপম দেব, সুজন চক্রবর্তীর পর শাসকের নিশানায় কী তবে বিরোধী দলের দাপুটে নেতা রেজ্জাক মোল্লা? এখন প্রশ্ন উঠছে এই নিয়েই।