ভাসানে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব, আহত ১২

তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জের গড়াল কালীপুজোর ভাসানেও। গতরাতে বারুইপুরে দুটি ক্লাবের মধ্যে সংঘর্ষে আহত হয়েছেন প্রায় ১২ জন। ওই দুটি ক্লাবের শীর্ষপদে রয়েছেন তৃণমূলের দুই কাউন্সিলর। অভিযোগ, তাঁদের মধ্যে এক কাউন্সিলরের নেতৃত্বে হামলা হয়। আহতদের মধ্যে তিন জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। এলাকার পরিস্থিতি থমথমে। গত বৃহস্পতিবার কালীপুজোর প্রতিমা ভাসানের সময় থেকে বিবাদ শুরু হয়েছিল বারুইপুরের দুটি ক্লাবের মধ্যে। সাহাপাড়া প্রগতি সংঘের পুজো মূলত তৃণমূল কাউন্সিলর বিভাস সর্দারের পুজো বলে এলাকায় পরিচিত।

Updated: Nov 19, 2012, 12:37 PM IST

তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জের গড়াল কালীপুজোর ভাসানেও। গতরাতে বারুইপুরে দুটি ক্লাবের মধ্যে সংঘর্ষে আহত হয়েছেন প্রায় ১২ জন। ওই দুটি ক্লাবের শীর্ষপদে রয়েছেন তৃণমূলের দুই কাউন্সিলর। অভিযোগ, তাঁদের মধ্যে এক কাউন্সিলরের নেতৃত্বে হামলা হয়। আহতদের মধ্যে তিন জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। এলাকার পরিস্থিতি থমথমে। গত বৃহস্পতিবার কালীপুজোর প্রতিমা ভাসানের সময় থেকে বিবাদ শুরু হয়েছিল বারুইপুরের দুটি ক্লাবের মধ্যে। সাহাপাড়া প্রগতি সংঘের পুজো মূলত তৃণমূল কাউন্সিলর বিভাস সর্দারের পুজো বলে এলাকায় পরিচিত। উল্টোদিকে, নেতাজী স্পোর্টিং ক্লাবের কালীপুজো আরেক তৃণমূল কাউন্সিলর মিতা দত্তের পাড়ার পুজো। অভিযোগ, দুটি ক্লাবের মধ্যে ভাসান নিয়ে গণ্ডগোলে ঘৃতাহুতির কাজ করেছে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব।    
চাপা উত্তেজনা চলছিল গত দু-তিন দিন ধরে। ঝামেলা মিটিয়ে ফেলার জন্য দুই কাউন্সিলরের উপস্থিতিতে রবিবার সকালে বৈঠকও হয়। তবে পরিস্থিতি আমূল বদলে যায় রাতের মধ্যে। তৃণমূল কাউন্সিলর বিভাস সর্দারের নেতৃত্বে নেতাজী স্পোর্টিং ক্লাবে হামলার অভিযোগ উঠেছে। পাল্টা অভিযোগ আনা হয়েছে সাহাপাড়া প্রগতি সংঘের পক্ষ থেকেও। দুপক্ষের চাপানউতোরে এলাকা উত্তপ্ত হয়ে ওঠে। বারুইপুরের এসডিপিও-র নেতৃত্বে বিশাল পুলিসবাহিনী রাতে ঘটনাস্থলে যায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে লাঠিচার্জ করতে হয়। সংঘর্ষে আহতদের ভর্তি করা হয় বারুইপুর মহকুমা হাসপাতালে। পরে রাতেই আশঙ্কাজনক অবস্থায় তিনজনকে কলকাতায় চিত্তরঞ্জন হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়।