ডার্টি পিকচারের লজ্জায় যোগ গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব, ফিরলেন বিতর্কের আরাবুলও

Last Updated: Friday, January 4, 2013 - 22:46

ভাঙড়ে তৃণমূলের প্রতিষ্ঠা দিবসে জলসায় অশ্লীল নাচ এবং মঞ্চে টাকা ছোড়ার ঘটনায় চক্রান্তের অভিযোগ তুললেন অভিযুক্ত দুই নেতা। এই ঘটনায় অভিযুক্ত মীর তাহের আলি এবং আয়নাল মোল্লার দাবি, ওই দিন আরাবুল ইসলাম- কাইজার আমেদসহ ভাঙড়ের অনেক দলীয় নেতাই হাজির ছিলেন মঞ্চে। ওই দিনের ঘটনায় তাঁদের ফাঁসানো হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন আয়নাল এবং তাহের। তৃণমূলের প্রতিষ্ঠা দিবসে ভাঙড় জলসাকাণ্ডের পর প্রথমবার মুখ খুললেন অভিযুক্ত দুই তৃণমূল নেতা মীর তাহের আলি এবং আয়নাল মোল্লা। যদিও বিতর্কিত আচরণের জন্য বিন্দুমাত্র দুঃখপ্রকাশ না করেননি তাঁরা।
 
এঘটনায় উল্টে ভাঙড়ের তৃণমূল নেতৃত্বের দিকে ষড়যন্ত্রের পাল্টা তোপ দাগলেন দুই নেতা। দক্ষিণ চব্বিশ পরগনা জেলা পরিষদের সদস্য মীর তাহের আলির দাবি, অনুষ্ঠানের দিন মঞ্চে হাজির ছিলেন আরাবুল ইসলামসহ তৃণমূল কংগ্রেসের অন্যান্য স্থানীয় নেতারা। এলাকায় রাজনৈতিক প্রভাব খর্ব করতেই ফাঁসানো হয়েছে তাঁকে,এমনটাই দাবি তাহের আলির। ভাঙড় এক নম্বর ব্লক তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক আয়নাল মোল্লা। ঘটনার দিন মঞ্চে উঠে মহিলাদের দিকে টাকা ছুঁড়তে দেখা যায় এই তৃণমূল নেতাকে।
 
মঞ্চে সেদিন আয়নালের যে বেপরোয়া আচরন ধরা পড়েছিল ক্যামেরায়, একই রকম বেপরোয়া ভঙ্গি ধরা পড়ল এদিনও। নিজের সাফাইয়ে পাল্টা ষড়যন্ত্রের তত্ত্ব খাড়া করলেন আয়নালও। তাঁর দাবি, চক্রান্ত করে তাঁকে ফাঁসানোর চেষ্টা করেছেন দক্ষিণ ২৪ পরগনার যুব তৃণমূল কংগ্রেস নেতা কাইজার আহমেদ। জলসাকাণ্ডে অভিযুক্ত দুই নেতার এদিনের মন্তব্য নিয়ে অবশ্য মুখ খুলতে চাননি তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা নেতৃত্ব।



First Published: Friday, January 4, 2013 - 22:54


comments powered by Disqus