দাবি না মানায় বাম কাউন্সিলারদের ঘেরাও তৃণমূলের

অস্থায়ী কর্মী নিয়োগের দাবি না মানায় পুর চেয়ারম্যান ও বাম কাউন্সিলারদের ঘেরাও করে রাখল তৃণমূল সমর্থকেরা । কোচবিহারের তুফানগঞ্জ পুরসভার বোর্ড মিটিংয়ে অস্থায়ী কর্মী নিয়োগের দাবি জানানো হয়। দাবি না মানায় শুরু হয় ঘেরাও। ঘটনাস্থলে পৌঁছন মহকুমাশাসক। তৃণমূল সমর্থকদের সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি। ছঘণ্টারও বেশি সময় ধরে ঘেরাও থাকার মুক্ত হন চেয়ারম্যান ও বাম কাউন্সিলারেরা।

Updated: Feb 24, 2013, 02:06 PM IST

অস্থায়ী কর্মী নিয়োগের দাবি না মানায় পুর চেয়ারম্যান ও বাম কাউন্সিলারদের ঘেরাও করে রাখল তৃণমূল সমর্থকেরা । কোচবিহারের তুফানগঞ্জ পুরসভার বোর্ড মিটিংয়ে অস্থায়ী কর্মী নিয়োগের দাবি জানানো হয়। দাবি না মানায় শুরু হয় ঘেরাও। ঘটনাস্থলে পৌঁছন মহকুমাশাসক। তৃণমূল সমর্থকদের সঙ্গে বৈঠক করেন তিনি। ছঘণ্টারও বেশি সময় ধরে ঘেরাও থাকার মুক্ত হন চেয়ারম্যান ও বাম কাউন্সিলারেরা।
শনিবার, তুফানগঞ্জ পুরসভায় বোর্ড মিটিং ছিল। সেই মিটিংয়ে ২৪ জন অস্থায়ী কর্মী নিয়োগের দাবি জানান তৃণমূল কংগ্রেস কাউন্সিলাররা। দাবি না মানায় শুরু হয় বিক্ষোভ। বিকেল পাঁচটা নাগাদ চেয়ারম্যান সহ আট বাম কাউন্সিলারকে ঘেরাও করেন তৃণমূল কংগ্রেস সমর্থকেরা।
খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছয় পুলিস। পরিস্থিতির চাপে অসুস্থ হয়ে পড়েন একজন বাম কাউন্সিলার। তাঁকে তুফানগঞ্জ মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ঘেরাওয়ের সময় বাম কাউন্সিলারদের জোর করে পদত্যাগ করতে চাপ দেওয়া হয় বলে অভিযোগ।
পরিস্থিতি সামাল দিতে ঘটনাস্থলে যান তুফানগঞ্জের মহকুমাশাসক। তিনি বিক্ষোভকারী এবং বাম কাউন্সিলারদের সঙ্গে কথা বলেন । সিদ্ধান্ত হয়, আগামী ১৫ মার্চ পরবর্তী বোর্ড মিটিংয়ে নিয়োগের বিষয়টি খতিয়ে দেখে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। এরপরেই রাত প্রায় সাড়ে এগারোটা নাগাদ ঘেরাও তুলে নেওয়া হয়।