শীতে, কুয়াশায় জবুথবু রাজ্য

শীতে, কুয়াশায় জবুথবু রাজ্য, উত্তর ভারতে মৃত ৪০

শীতে, কুয়াশায় জবুথবু রাজ্য, উত্তর ভারতে মৃত ৪০রাজ্যজুড়ে শীতের কামড় অব্যাহত। আগামী ২৪ ঘণ্টাতেও পরিস্থিতি অপরিবর্তিত থাকবে বলে জানিয়েছে আলিপুর আবহাওয়া দফতর। তীব্র ঠাণ্ডার কবলে উত্তর ও পূর্ব ভারত। ঠাণ্ডায় এখনও পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা ৪০-এরও বেশি।

আজ কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১০.৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে চার ডিগ্রি কম। দক্ষিণবঙ্গের অন্যান্য জেলার জনজীবনও শীতে জবুথবু। ভোরের দিকে ঘন কুয়াশার কারণে বহু জায়গাতেই রেল ও সড়ক যোগাযোগ বিঘ্নিত হচ্ছে। উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিও পড়ছে ঘন কুয়াশা ও হাড়কাঁপানো শীতের কবলে। দক্ষিণবঙ্গে কলকাতা ছাড়া বাকি সব জেলাতেই শৈত্যপ্রবাহের সতর্কতা জারি করেছে আবহাওয়া দফতর।

শীতে জবুথবু দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জেলা। উত্তর চব্বিশ পরগনার তাপমাত্রা ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস। দক্ষিণ ২৪ পরগনাতে তাপমাত্রা নেমেছে ৯ ডিগ্রিতে। গতকাল রাতে হাওড়ার তাপমাত্রা পৌঁছেছিল ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াসে।

হাড়হিম করা ঠাণ্ডা পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলিতেও। পুরুলিয়ার তাপমাত্রা ৬.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। বাঁকুড়ায় ৮.৭ ডিগ্রি। বীরভূমের তাপমাত্রা ৬.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ঠাণ্ডার সঙ্গে জেলাগুলিতে রয়েছে ঘন কুয়াশার দাপট।

উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিও ঘন কুয়াশা ও হাড়কাঁপানো শীতের কবলে। দার্জিলিংয়ের তাপমাত্রা ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। জলপাইগুড়ির তাপমাত্রা ৯ ডিগ্রি। উত্তর দিনাজপুরের তাপমাত্রা ৬.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

ঠাণ্ডায় এখনও পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা ৪০-এরও বেশি। গত কয়েকদিনে শুধুমাত্র উত্তরপ্রদেশেই ৩০ জনের মৃত্যু হয়েছে। বিহারে ঠাণ্ডায় মৃতের সংখ্যা ১১। পঞ্জাবে মারা গেছেন তিন জন। কুয়াশার কারণে ব্যাহত হচ্ছে ট্রেন ও বিমান চলাচল।

উত্তরপ্রদেশের বহু জায়গায় তাপমাত্রা ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নীচে। গয়ায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৪.৬ ডিগ্রি। হরিয়ানার নারনাউলে ২.২ ডিগ্রি সেলসিয়াসে নেমে গেছে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা। শীতের কামড়ে কাবু রাজধানী দিল্লিও। দিল্লির সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ৪.২ ডিগ্রি। লাহুল, স্পিতি, কিন্নর সহ হিমাচল প্রদেশের বিভিন্ন জায়গায় তুষারপাত হয়েছে।






First Published: Friday, December 28, 2012, 13:39


comments powered by Disqus