মাঝ মাঠে মাথা মুড়িয়ে গৃহধূকে যৌন নির্যাতন ডায়মন্ডহারবারে

শ্বশুরবাড়িতে মধ্যযুগীয় হিংসার শিকার হলেন এক মহিলা। ডায়মন্ডহারবারের নবাসনে ৪ ঘণ্টা আটকে রেখে মাথা মুড়িয়ে, ভ্রু কামিয়ে, মারধরের পরে চলল অকথ্য যৌন নির্যাতন। অভিযোগ পেয়েও নীরব পুলিস।

Updated: Jul 21, 2013, 07:03 PM IST

শ্বশুরবাড়িতে মধ্যযুগীয় হিংসার শিকার হলেন এক মহিলা। ডায়মন্ডহারবারের নবাসনে ৪ ঘণ্টা আটকে রেখে মাথা মুড়িয়ে, ভ্রু কামিয়ে, মারধরের পরে চলল অকথ্য যৌন নির্যাতন। অভিযোগ পেয়েও নীরব পুলিস।
শুক্রবার ভোট দিতে গিয়েছিলেন শ্বশুরবাড়িতে। সেটাই কাল হল। মারধর এবং যৌন নির্যাতনের পরে অচৈতণ্য অবস্থায় মাঠে ফেলে দেওয়া হয় ওই মহিলাকে। তারপর আরেক ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতা। ডায়মন্ডহারবারের নবাসনে শ্বশুরবাড়ির গ্রাম থেকে প্রচণ্ড যন্ত্রণা নিয়ে রাতেই নেতড়ায় বাপের বাড়িতে ফেরেন ওই মহিলা। তাঁর ওপর পৈশাচিক অত্যাচারের কথা স্বীকার করে নিয়েছেন তাঁর শ্বশুরবাড়ির পাড়ার লোকেরা। নবাসনের বাসিন্দাদের অভিযোগ, মাস তিনেক আগে স্বামীর রহস্য-মৃত্যুর জন্য দায়ী ওই মহিলা। কিন্তু পুলিস কোনও ব্যবস্থা নেয়নি।
এই পাশবিক অত্যাচারের কথা শোনার পরে মহিলার বাপের বাড়ির লোকেরা যান ডায়মন্ডহারবার থানায়। এফআইআর নয়, সামান্য ডায়েরি নিয়েই দায় সেরেছে পুলিস।