'কাঁচা সবজি, মাছ-মাংস থেকে মুদিসদাই', ৯৭৩৫৯২৯৪১৩ নম্বরে ফোন করলেই মিলবে হোম ডেলিভারি

উত্তর-দক্ষিণ কলকাতা সহ সল্টলেক, রাজারহাট, নিউটাউন সর্বত্র দেখা মিলবে এই চলমান বাজার গাড়ির ।

Reported By: অধীর রায় | Updated By: Jul 10, 2020, 07:50 PM IST
'কাঁচা সবজি, মাছ-মাংস থেকে মুদিসদাই', ৯৭৩৫৯২৯৪১৩  নম্বরে ফোন করলেই মিলবে হোম ডেলিভারি
নিজস্ব চিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন : লকডাউন পর্বে মানুষের বাজারের সমস্যা সমাধানে রাজ্যের পঞ্চায়েতের অধীনস্থ "কমপ্রিহেন্সিভ এরিয়া ডেভেলপমেন্ট কর্পোরেশন" কলকাতা শহরের বাসিন্দাদের দরজায় দরজায় হাজির করল "চলমান বাজার"। বুধবার আনুষ্ঠানিকভাবে “চলমান বাজার” গাড়িটির উদ্বোধন করেন রাজ্যের পঞ্চায়েত মন্ত্রী সুব্রত মুখার্জি । তবে রাস্তায় নেমে পঞ্চায়েতের অধীনস্থ 'চলমান বাজার' গাড়ি কাজ শুরু করল শুক্রবার।

উত্তর-দক্ষিণ কলকাতা সহ সল্টলেক, রাজারহাট, নিউটাউন সর্বত্র দেখা মিলবে এই চলমান বাজার গাড়ির । এই চলমান বাজার একটি ভ্রাম্যমান গাড়ি হলেও এখানে নিত্যপ্রয়োজনীয় সবকিছু পাওয়া যাবে ।কমপ্রিহেন্সিভ এরিয়া ডেভেলপমেন্ট কর্পোরেশনের সচিব সৌম্যজিত্ দাস জানান , “কাঁচা সবজি থেকে মাছ মাংস আর মুদিখানাও মিলবে এই গাড়িতে । সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হল সব পণ্য নিজের ঘরে তৈরি । রাজ্যের সমস্ত পঞ্চায়েত এলাকাগুলোতে মহিলা কর্মীরা নিজেদের হাতে শস্য ফলাচ্ছেন । গ্রামে গ্রামে হচ্ছে মাছের চাষ । সেই ফসল এবং মাছ পাওয়া যাচ্ছে এই চলমান বাজার গাড়িতে । আর জিনিসপত্রের মূল্য বাজার থেকে ১৫ থেকে ৩০ শতাংশ কম ।”

অনেকদিন আগে থেকেই কলকাতার মধ্যে বিশেষ করে সল্টলেক, রাজারহাট, নিউটাউনের বিভিন্ন এলাকায়  বয়স্ক বাসিন্দাদের কাছে ব্যাটারিচালিত ছোট ছোট ১০টি গাড়ির মারফত সবজি বাজার সরবরাহ করা শুরু হয়েছিল। এবার ফের লকডাউনের সম্ভাবনা তৈরি হতেই রাজ্যের পঞ্চায়েতের অধীনস্থ "কমপ্রিহেন্সিভ এরিয়া ডেভেলপমেন্ট করপোরেশন" আরও বড় এলাকা জুড়ে তাদের এই কর্মকাণ্ড ছড়িয়ে দেওয়া পরিকল্পনা করে । সেইমত শুক্রবার থেকে কলকাতার লকডাউন এরিয়াতে ঘুরে বেড়াচ্ছে চলমান বাজার গাড়ি। 

লকডাউনের জন্য আরও চারটি বড় গাড়ি দফতর থেকে নামানো হয়েছে । বর্তমানে ১৪টি চলমান সবজি গাড়ি শহর কলকাতায় ডোর ট্যু ডোর ঘুরে মানুষের নিত্যপ্রয়োজনীয় সবকিছু বিক্রি করছে। যাতে লকডাউনে কোনও অবস্থাতেই মানুষকে ঘরের বাইরে যেতে না হয়। ধরা যাক, আপনার কোনও জিনিস প্রয়োজন, চিন্তা নেই। তার জন্য আপনাকে বেরতেও হবে না।  “ ৯৭৩৫৯২৯৪১৩” এই নম্বরে ফোন করলে সঙ্গে সঙ্গেই হোম ডেলিভারি পেয়ে যাবেন।

আরও পড়ুন, সরকারের বিরুদ্ধে আদালতে যাচ্ছে বিজেপি, কেন? জানালেন রাহুল