কলকাতায় মমতার ব্রিগেডের দিনই তৃণমূলে ভাঙন ধরানোর মাস্টারপ্ল্যান মুকুলের

রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ, জাতীয় সম্পাদক রাহুল সিনহা থাকা সত্ত্বেও বাংলা থেকে বক্তা হিসেবে মঞ্চে উঠলেন মুকুল রায়।

Updated By: Jan 12, 2019, 08:14 PM IST
কলকাতায় মমতার ব্রিগেডের দিনই তৃণমূলে ভাঙন ধরানোর মাস্টারপ্ল্যান মুকুলের

অঞ্জন রায় 

দিল্লির রামলীলা ময়দানে বিজেপির মহাধিবেশনে বাংলা থেকে গেরুয়া শিবিরের মুখ হয়ে মঞ্চে আর্বিভাব হল মুকুল রায়ের। একদা তৃণমূল নেতার এমন 'মেগা উত্থান' চমকে গিয়েছে রাজ্য বিজেপির পোড়খাওয়া নেতাদেরও। চমক এখানেই থামছে না! বিজেপি সূত্রের খবর, ১৯ জানুয়ারি মমতার ব্রিগেডের সমাবেশের দিনই পাল্টা দিতে চলেছেন মুকুল রায়।               

রাজ্য বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষ, জাতীয় সম্পাদক রাহুল সিনহা থাকা সত্ত্বেও বক্তা হিসেবে মঞ্চে উঠলেন মুকুল রায়। ২০১৭ সালের নভেম্বরের শুরুতেই গেরুয়া শিবিরে নাম লিখেছিলেন মুকুল রায়। সেই মুকুলই তুলে ধরলেন পশ্চিমবঙ্গের বর্তমান অবস্থা। শাসক দলকে নিশানাও করলেন। মুকুলের ভাষণ জুড়ে ছিল, রাজ্যে তৃণমূলের হিংসার রাজনীতি। ফলে প্রশ্নটা উঠে আসছে, আরও বড় দায়িত্ব কি পাচ্ছেন মুকুল রায়? রাজ্যের সর্বোচ্চ পদেই কি বিরাজমান হতে চলেছেন একদা তৃণমূলের চাণক্য?     

রাজ্যে লোকসভা ভোটের দায়িত্বে রয়েছেন মুকুল রায়। তিনিই বিজেপির নির্বাচনী কৌশল কমিটির আহ্বায়ক। কিন্তু এটাও মনে রাখতে হবে, দলের কোনও পদে নেই মুকুল রায়। স্বাভাবিকভাবে তাঁকে বক্তা করায় বিস্মিত রাজ্য বিজেপি নেতৃত্ব। কানাঘুষো শোনা যাচ্ছে, ১৯ জানুয়ারি মমতার ব্রিগেডের দিনই বড় চমক নিয়ে হাজির হতে পারেন মুকুল রায়। কী সেই চমক? ১৯ জানুয়ারি ব্রিগেডে সমাবেশ করতে চলেছে তৃণমূল কংগ্রেস। লোকসভা ভোটের আগে ব্রিগেডের সভায় দেশজুড়ে বিরোধী নেতানেত্রীদের হাজির করাবেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মোদীবিরোধী জোটের হাওয়া আরও জোরালো করে তোলাই লক্ষ্য তৃণমূল নেত্রীর। কিন্তু মমতার প্রচারের আলো কেড়ে নিতে মরিয়া মুকুল রায়ও। সেদিনই তৃণমূলে ভাঙন ধরানোর পরিকল্পনা করেছেন তিনি। শোনা যাচ্ছে, দিল্লিতে যোগদান করতে পারেন তৃণমূলের কয়েকজন নেতা। কারা কারা?  স্বাভাবিকভাবেই  মুখে কুলুপ এঁটেছেন মুকুল রায়। 

দিন কয়েক আগে বিজেপিতে যোগদান করেন বিষ্ণুপুরের সাংসদ সৌমিত্র খাঁ। ওইদিনই সাসপেন্ড হয়েছেন আরও এক সাংসদ অনুপম হাজরা। মুকুলের ঘনিষ্ঠ সূত্রের খবর, আরও কয়েকজন তৃণমূল নেতা যোগাযোগ করছেন বিজেপি নেতার সঙ্গে। 

আরও পড়ুন- সিবিআই-কে বাধা দিইনি, ৯ ঘণ্টা জেরা করেছিল রাজ্যস্তরের অফিসার: মমতাকে খোঁচা মোদীর

প্রসঙ্গত, রবিবার রাজ্যের নির্বাচনী রণকৌশলে নেতাদের সঙ্গে বসবেন অমিত শাহ। তৈরি হবে পথমানচিত্র। মহাধিবেশনের সভাতেই শুক্রবার অমিত শাহ বলেছিলেন, বাংলায় সরকারে আসতে তৈরি বিজেপি। দিল্লি বিজেপি সূত্রে খবর, ওডিশা, পশ্চিমবঙ্গের মতো রাজ্যে গেরুয়া শিবিরকে ক্ষমতায় আনতে চাইছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি। আর তাই বাংলায় তৃণমূলকে চাপে ফেলতে কোমর বেঁধে নামছে বিজেপি।