জ্যোতি বসু নগর: নতুন করে সংশোধনী বিল আনার দাবি বামেদের

রাজারহাট নিউটাউনের নাম জ্যোতি বসু নগর করার জন্য বিধানসভায় পাস হওয়া বিল প্রত্যাহার করে নিয়েছে সরকার। সরকারের এই সিদ্ধান্ত ক্ষুব্ধ বামেরা। নতুন করে সংশোধনী বিল আনার দাবি জানালেন বিরোধী দলনেতা সূর্যকান্ত মিশ্র।  সংশোধনী বিলে জ্যোতি বসু নগরীর নাম রাখার দাবি জানিয়েছে বামেরা।

Updated By: Nov 28, 2013, 03:21 PM IST

রাজারহাট নিউটাউনের নাম জ্যোতি বসু নগর করার জন্য বিধানসভায় পাস হওয়া বিল প্রত্যাহার করে নিয়েছে সরকার। সরকারের এই সিদ্ধান্ত ক্ষুব্ধ বামেরা। নতুন করে সংশোধনী বিল আনার দাবি জানালেন বিরোধী দলনেতা সূর্যকান্ত মিশ্র।  সংশোধনী বিলে জ্যোতি বসু নগরীর নাম রাখার দাবি জানিয়েছে বামেরা।

২০১১-র সালে দ্য নিউটাউন কলকাতা ডেভেলপমেন্ট অথিরিটি অ্যামেন্ডমেন্ট বিল পাস হয়। ওই বিলে নিউ টাউনের নাম জ্যোতি বসু নগর করার প্রস্তাব ছিল। সেই বিল প্রত্যাহার করে নিয়ে মঙ্গলবার দ্য নিউ টাউন কলকাতা ডেভেলপমেন্ট অথরিটি অ্যামেন্ডমেন্ট বিল ২০১৩ পেশ করে সরকার। সূর্যকান্ত মিশ্র বিধানসভায় দাঁড়িয়ে জানতে চেয়ে ছিলেন যে বিল পাস হয়ে গিয়েছিল সেটা কেন প্রত্যাহার হচ্ছে?

তখন পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম বলেন, রাজ্যপাল বিলটি ফেরত পাঠিয়ে দিয়েছেন। এরপরই রাজভবন থেকে আসা ইংরেজি নোটটি পড়ে শোনান ফিরহাদ হাকিম। নোটটির বঙ্গানুবাদ করলে দাঁড়ায় আপনারা কী চান রাজ্যপাল বিলটিতে সই করুন? এরপর বিরোধীরা প্রতিবাদ জানাতে থাকেন। তারা বলেন, রাজভবনের নোটকে বিকৃত করছে সরকারপক্ষ।

বিরোধী দলনেতা বলেন, সরকারের পক্ষ থেকে নোটটি দেখানো হোক। ফিরহাদ হাকিম দেখানোর প্রতিশ্রুতি দিলেও তা শেষমেষ দেখান নি। আর এখানেই রাজনীতির গন্ধ দেখছেন বিরোধীরা। তাঁদের অভিযোগ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে জ্যোতি বসুর নাম মুছে দিতে চাইছে সরকার।

এই অসৌজন্যের জন্য সরকারকে বিঁধেছে বামেরা। বামদলগুলি বলছে তাঁদের আমলে বিধানচন্দ্র রায়ের সঙ্গে মতপার্থক্য ছিল। কিন্তু তা সত্ত্বেও সল্টলেকের নাম বিধাননগর রাখা হয়েছিল। তাহলে বর্তমান সরকার কেন সেটুকু সৌজন্যেও দেখাতে পারছে না?