প্রধানমন্ত্রী হওয়ার স্বপ্ন দেখি না, জি নিউজের কনক্লেভে দাবি অখিলেশের

২০১৯ সালে মহাজোটের সামনে ক্ষমতা হারাবেন মোদী, দাবি অখিলেশের। 

Updated By: Jun 20, 2018, 06:28 PM IST
প্রধানমন্ত্রী হওয়ার স্বপ্ন দেখি না, জি নিউজের কনক্লেভে দাবি অখিলেশের

নিজস্ব প্রতিবেদন: মহাজোট ক্ষমতায় আসার পর কে প্রধানমন্ত্রীর কুর্সিতে বসবেন? এই প্রশ্নের উত্তরে নিজেকে লোককল্যাণ মার্গের দৌড় থেকে সরিয়ে নিলেন অখিলেশ যাদব। নয়াদিল্লিতে 'জি নিউজ ইন্ডিয়া কা ডিএনএ ২০১৯' আলোচনাচক্রে উত্তরপ্রদেশের প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ''আশা করছি, আগামী লোকসভা নির্বাচনের পর নতুন প্রধানমন্ত্রীকে দেখতে পাবে দেশ। নির্বাচনের ফল ঘোষণার পরই প্রধানমন্ত্রীর পদপ্রার্থীর নাম ঘোষণা করা হবে। তবে আমার এমন (প্রধানমন্ত্রী হওয়ার) বড় স্বপ্ন নেই।'' এর পাশাপাশি কেসিআর, মায়া, মমতার কাজেরও প্রশংসা করেছেন মুলায়ম-পুত্র।    

অতিসম্প্রতি উত্তরপ্রদেশে তাদের সাবেক যুযুধান বপসা-র সঙ্গে জোট বেঁধে বিজেপিকে ঠেকিয়ে দিয়েছে অখিলেশের দল। ফলে তাঁকে প্রশ্ন করা হয়, লোকসভা ভোটে দেশ জুড়ে বিরোধী জোট কি সম্ভব? জি নিউজের সম্পাদক সুধীর চৌধুরীর এই প্রশ্নের জবাব সরাসরি দেননি মুলায়মপুত্র। তাঁর কথায়, ২০১৯ সালের নির্বাচনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেবে উত্তরপ্রদেশ। বসপা মায়াবতীকে প্রধানমন্ত্রী পদপ্রার্থী করতে চাইলে আপনি কি তা মেনে নেবেন? প্রশ্নের জবাব এড়িয়ে গিয়েছেন অখিলেশ যাদব। এরপরই জানতে চাওয়া হয়, বিরোধী জোট ক্ষমতায় এলে রাহুল গান্ধীকে প্রধানমন্ত্রীর পদে সমর্থন দেবেন কি না? অখিলেশের কথায়, ''কংগ্রেস সভাপতির রাজনৈতিক ঐতিহ্য রয়েছে। তবে সেই স্বপ্নপূরণে কংগ্রেসকে পরিশ্রম করতে হবে।''    

গতবছর উত্তরপ্রদেশে হার নিয়ে মনের কথা বলেছেন অখিলেশ যাদব। তাঁর দাবি, জাতি ও ধর্মের খেলায় নির্বাচন জিতেছিল বিজেপি। রাজ্যে অনেক কাজ করেছি। তবু ভোটারকে প্রভাবিত করতে ব্যর্থ হয়েছি। মহাজোটের ভাল ফল হওয়ায় আশাবাদী এই তরুণ সপা নেতা। ২০১৯ সালে মহাজোটই যে ক্ষমতার পট পরিবর্তন করবে তা নিয়ে আত্মবিশ্বাসী অখিলেশ সিংহ যাদব। তিনি মনে করেন, ২০১৯ সালে মহাজোটের সামনে ক্ষমতা হারাবেন মোদী। কর্ণাটকের মুখ্যমন্ত্রী এইচডি কুমারস্বামীর শপথগ্রহণ অনুষ্ঠানে বিরোধী ঐক্যের ছবিই সেই বার্তা দিয়েছে। 

নয়াদিল্লির তাজ প্যালেস হোটেলে শুরু হয়েছে Zee News India Ka DNA 2019 Conclave। এখানে জম্মু-কাশ্মীর থেকে অর্থনীতি, আগামী লোকসভা নির্বাচন নিয়ে নিজেদের মত দেবেন শাসক-বিরোধী দলের রাজনৈতিক নেতানেত্রীরা। 

আরও পড়ুন- "শুনেছেন, নবরাত্রি ব্রত পার্টি দেওয়া হচ্ছে?" প্রশ্ন নকভির