নীতীশের নয়া মদ ফতোয়া

পরিবারের কোনও একজন সদস্য মদ খেয়ে ধরা পরলেই সেই পরিবারের বাকি প্রাপ্ত বয়স্ক সদস্যদেরকেও জেলে পোরা হবে। তাঁর রাজ্যের জন্য ঠিক এই রকমই একটা আইন আনতে চলেছেন বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার। গতকালই ‘বিহার মদ্য নিষেধ ও আবগারি বিল, ২০১৬’ নামক বিলটি বিহার বিধানসভায় পেশ করা হয়েছে।

Updated By: Jul 31, 2016, 05:51 PM IST
নীতীশের নয়া মদ ফতোয়া

ওয়েব ডেস্ক: পরিবারের কোনও একজন সদস্য মদ খেয়ে ধরা পরলেই সেই পরিবারের বাকি প্রাপ্ত বয়স্ক সদস্যদেরকেও জেলে পোরা হবে। তাঁর রাজ্যের জন্য ঠিক এই রকমই একটা আইন আনতে চলেছেন বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমার। গতকালই ‘বিহার মদ্য নিষেধ ও আবগারি বিল, ২০১৬’ নামক বিলটি বিহার বিধানসভায় পেশ করা হয়েছে।

নীতীশের এই বিল যে  আইনি বৈধতা পেতে বেগ পাবে সে কথা তাঁকে ইতিমধ্যেই জানিয়েছেন বিহার সরকারের উচ্চ পর্যায়ের আমলারা। কিন্তু নীতীশ সেসব কথা শুনতে নারাজ। কারণ, কোনও একজন অপরাধ করলে অন্য কারওকে সেই অপরাধের জন্য সাজা দেওয়া ভারতীয় সংবিধান ও দণ্ডবিধির মূল ভিত্তির পরিপন্থী বলে মনে করছে ওয়াকিবহাল মহল। এই বিলে আরও বলা হয়েছে : ''কোনও ভাবে নেশার বিজ্ঞাপন দিলে বা সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রচার করলে পাঁচ বছরের জেল এবং দশ লক্ষ টাকা জরিমানা হতে পারে। মহিলা বা বালকদের নেশার দ্রব্য পাচার বা তৈরির জন্য ব্যবহার করলে যাবজ্জীবন কারাবাসও হতে পারে।''

আরও পড়ুন- স্বাধীন ভারতে প্রথম ফাঁসি

 মদের ব্যাপারে নীতীশের এই 'বাতিকগ্রস্থতা' নিয়ে বিরোধীতা জানিয়েছেন বিহারে বিজেপির মুখ তথা প্রাক্ত উপ-মুখ্যমন্ত্রী সুশীল কুমার মোদী। লালু প্রসাদও জানিয়েছেন যে এই বিলের বিষয়ে তিনি নিজে নীতীশের সঙ্গে কথা বলবেন।  রাজনৈতিক মহলের একটা অংশের মতে মদ নিয়ে নীতীশের এই 'ক্রুশেড'-এ তাঁর হিতে বিপরীত হওয়ার সম্ভবনাও প্রবল।

আরও পড়ুন- আমির খানের উদ্দেশ্যে ঘুরিয়ে তোপ দাগলেন প্রতিরক্ষা মন্ত্রী পরিক্কর