ম্যাচ শুরুর আগেই নির্বাসিত পুনের পিচ কিউরেটর! সেই পিচে কী কাণ্ড ঘটালেন ভুবিরা?

Updated By: Oct 25, 2017, 05:06 PM IST
 ম্যাচ শুরুর আগেই নির্বাসিত পুনের পিচ কিউরেটর! সেই পিচে কী কাণ্ড ঘটালেন ভুবিরা?

নিজস্ব প্রতিবেদন : পুনেতে নিউ জিল্যান্ডের বিরুদ্ধে সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ শুরুর আগেই নাটক। শুধু নাটক বললে ভুল হবে, এমন ঘটনা সাম্প্রতিককালে আদৌ হয়েছে কিনা, সেটাও একটা আলোচনার বিষয়। কারণ, পুনের মহারাষ্ট্র ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের পিচ কিউরেটর পাণ্ডুরঙ্গ সালগাঁওকরকে আজ নির্বাসিত করেছে বিসিসিআই। শুধু তাই নয়, মহারাষ্ট্র ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের সব পদ থেকেই তাঁকে অপসারিত করা হয়েছে। ম্যাচের আগে একটি স্ট্রিং অপরেশনে দেখা যায়, পিচ কিউরেটর সালগাঁওকর দিব্যি পিচ সম্পর্কিত তথ্য দিয়ে দিচ্ছেন সাংবাদিকদের! শুধু তাই নয়, ইন্ডিয়া টুডে-র সাংবাদিকদের দিব্যি বলে দিচ্ছেন যে, তিনি পিচ বদলেও দিতে পারেন দরকারে! সেই সাংবাদিকরা আবার বুকি সেজেই গিয়েছিলেন পিচের কাছে! অভিযোগ উঠেছে এমনটাই। এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসার সঙ্গে সঙ্গেই তাঁকে নির্বাসিত করা হয়। এই ঘটনার কথা জানতে পেরে প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলি বলেছেন, 'জানি না ঠিক কী হয়েছে। আমি দেখিনি। তবে, প্রচণ্ড অবাক লাগছে।' অথচ, এই সালগাঁওকর সাতের দশকের একজন প্রতিভাবান ক্রিকেটার হিসেবেই গণ্য হতেন।

আরও পড়ুন মালয়ালম গান গাইছে ধোনি-কন্যা! ভাইরাল ভিডিও

ভারতীয় ক্রিকেটের কিংবদন্তি সুনীল গাভাসকর তাঁর আত্মজীবনী 'সানি ডেজ'-এ লিখেছিলেন সালগাঁওকরের কথা। গাভাসকর লিখেছিলেন, সালগাঁওকরের ভারতীয় দলের জার্সিতে না খেলতে পারাটা সত্যিই খারাপ। জোরে বল করতেন এই পিচ কিউরেটর। ৬৩ টি ফার্স্ট ক্লাস ম্যাচ খেলে তিনি ২১৪টি উইকেটও পেয়েছিলেন। কিন্তু, আজকে তাঁর জীবনে যে ঘটনা ঘটল, তাতে আগামী দিনে তাঁর এই ইমেজ আর থাকবে কিনা সময়ই বলবে।

এই পিচ বিতর্কের মধ্যেই বল করতে এসে আগুন ঝরালেন ভারতীয় বোলাররা। বুধবার টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন নিউ জিল্যান্ডের অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। কিন্তু, ভুবনেশ্বর কুমারের দাপুটে বোলিংয়ের জন্যই স্কোরবোর্ডে বড় রান তুলতে পারলেন না কিউয়িরা। ৫০ ওভারে তারা তুলল মাত্র ৯ উইকেটে ২৩০ রান। নিউ জিল্যান্ডের দুই ওপেনারের কেউই রান পেলেন না। মার্টিন গাপ্তিল করেন ১১ রান এবং কলিন মুনরো করেন ১০ রান। অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসনও রান পেলেন না সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে। মাত্র ৩ রান করেই আউট হয়ে যান তিনি। আগের ম্যাচের দুই নায়ক টম ল্যাথাম আউট হন ৩৮ রান করে এবং রস টেলর আউট হন ২১ রানে। নিকোলস খেলেন ৪২ রানের ইনিংস। কলিন ডে গ্র্যান্ডহোম করেন ৪১ রান। স্যান্টেনার করেছেন ২৯ রান। টিম সাউদি অপরাজিত থাকেন ২৫ রানে। ভারতের হয়ে সবথেকে বেশি তিনটি উইকেট পেয়েছেন ভুবনেশ্বর কুমার। দুটো করে উইকেট পেয়েছেন বুমরাহ এবং চাহাল। একটি করে উইকেট পেয়েছেন হার্দিক পাণ্ডিয়া এবং অক্ষর প্যাটেল।

আরও পড়ুন  'আমরা আবার ফিরে এসেছি', সচিন-কাম্বলি ফের এক ফ্রেমে