'চামড়া চিরে দেখুন, আমার রক্তক্ষরণ হচ্ছে', সাংবাদিকের প্রশ্নে বিস্ফোরক বিরাট

 "আমার অবশ্যই বিশ্রামের প্রয়োজন। কেনই বা আমার বিশ্রামের প্রয়োজন হবে না? আমার যখন মনে হবে আমার শরীর বিশ্রাম চাইছে, আমি বিশ্রামের আবেদন করব। আমি রোবট নই। চামড়া চিরে দেখুন, রক্তক্ষরণ হচ্ছে আমার।"  

Updated By: Nov 15, 2017, 07:50 PM IST
'চামড়া চিরে দেখুন, আমার রক্তক্ষরণ হচ্ছে', সাংবাদিকের প্রশ্নে বিস্ফোরক বিরাট

নিজস্ব প্রতিবেদন: নির্বাচকদের বিরুদ্ধে খড়্গহস্ত ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি। নাম না করেই বুঝিয়ে দিলেন, বিশ্রাম বিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে গাফিলতি রয়েছে নির্বাচকদের। ক্রিকেটের প্রয়োজনেই বিশ্রাম চেয়েছিলেন, সাফ জানালেন ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি। একই সঙ্গে এমএসকে প্রসাদের নেতৃত্বাধীন নির্বাচক মণ্ডলী যে সঠিকভাবে বিশ্রামের বিষয়টিকে দেখছে না সে বিষয়েও বিরাট গলায় শোনা গেল অভিযোগের সুর। 

আরও পড়ুন- অবিশ্বাস্য! শেনের শতাব্দীর সেরা বল আমান্ডার ডেলিভারিতে!

কোহলি ছুটি চেয়েও পাননি অথচ চোখের সামনেই দেখলেন, হার্দিকের বিশ্রাম আবেদন মঞ্জুর করেছে বোর্ড। এর আগে দলের দুই স্পিন অস্ত্র অশ্বিন এবং জাদেজাকেও বিশ্রাম দিয়েছে ম্যানেজমেন্ট। তাঁর বেলায় কেন তেমনটা হল না, নির্বাচকদের একহাত নিয়ে বিস্ফোরণ ঘটালেন কোহলি। ভারত - শ্রীলঙ্কা টেস্ট শুরুর ৪৮ ঘণ্টা আগেই কোহলির বেনজির বিস্ফোরণের সাক্ষী থাকল ইডেন গার্ডেন্স। জগমোহন ডালমিয়া স্মারক বক্তৃতায় আমন্ত্রিত বিরাট কোহলি সাংবাদিকদের বিশ্রাম প্রশ্নে বললেন, "আমার অবশ্যই বিশ্রামের প্রয়োজন। কেনই বা আমার বিশ্রামের প্রয়োজন হবে না? আমার যখন মনে হবে আমার শরীর বিশ্রাম চাইছে, আমি বিশ্রামের আবেদন করব। আমি রোবট নই। চামড়া চিরে দেখুন, রক্তক্ষরণ হচ্ছে আমার।"  

আরও পড়ুন- বাংলাদেশের কাছে হেরে এশিয়া কাপ থেকে ছিটকে গেল ভারত

সম্প্রতি বিরাটের বিশ্রাম ইস্যু নিয়ে অনেক জোল ঘোলাই হয়েছে। শিরোনাম হয়েছে বিরাট-অনুষ্কার বিয়ে নিয়েও। তবে বিরাট যে ক্রিকেটীয় কারণেই ছুটি চেয়েছেন, তা আরও একবার স্পষ্ট করলেন তিনি। সাংবাদিকদের কোহলি বলেন,"অনেক বিষয় নিয়েই কথা হচ্ছে, কিন্তু এই ইস্যুটা সঠিক ভাবে ব্যাখ্যা করা হয়নি। কাকে ছুটি দেওয়া হবে আর কাকে দেওয়া হবে না সেটা নির্বাচন করার আগে উচিত একজন ক্রিকেটারের কাজকে পর্যালোচনা করা।" এরপরই বিরাট যুক্ত করেন, "এই ইস্যুটা পর্যালোচনা করা উচিত। আমরা ইতিমধ্যেই ২০-২৫ জনের একটা কোর দল গঠন করেছি। এটা কখনই কাম্য নয়, গুরুত্বপূর্ণ সময়ে দলের নির্ভরযোগ্য ক্রিকেটার অসুবিধায় পড়ুক।" 

আরও পড়ুন- ২২ গজে ফিরছে 'স্টেইন গান'

যদিও, এই বিষয়ে নিজের অবস্থান আগেই স্পষ্ট করেছেন জাতীয় দলের নির্বাচক এমএসকে প্রসাদ। শ্রীলঙ্কা সফরে কোহলির সঙ্গে কথা বলেই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি। একই সঙ্গে শ্রীলঙ্কা সিরিজের পর ভারত অধিনায়ককে ছুটি দেওয়ার কথা ভাবা হচ্ছে বলেও জানান নির্বাচক প্রধান প্রসাদ।