close

News WrapGet Handpicked Stories from our editors directly to your mailbox

বিরাটের অভূতপূর্ব অনুরোধে ফের বিতর্কের আশঙ্কা!

ওয়াকিবহাল মহল মনে করছে, বিরাটের এই অনুরোধ কোনও ভাবেই মানা সম্ভব নয় বিসিসিআইয়ের।

Sourav Paul | Updated: Nov 8, 2018, 11:00 AM IST
বিরাটের অভূতপূর্ব অনুরোধে ফের বিতর্কের আশঙ্কা!

নিজস্ব প্রতিবেদন: ‘ফিট অ্যান্ড ফ্রেশ’ এটাই না কি সাফল্যের শ্রেষ্ঠ মন্ত্র। তাই বেছে বেছে সিরিজ খেলছেন, আর বুঝে শুনে বিশ্রাম নিচ্ছেন বিরাট। যেমন উইন্ডিজ সিরিজটাই ভাবুন। একটানা টেস্ট আর ওয়ানডে খেলার পর নিজেই বিসিসিআইয়ের থেকে ছুটি নিয়ে বিশ্রামে চলে গেলেন। খেললেন না টি-টোয়েন্টি সিরিজ।

আরও পড়ুন- ক্রিকেট-ভক্তকে ক্ষুব্ধ বিরাটের নির্দেশ, দেশ ছেড়ে চলে যান

ছুটি নিয়ে বিরাট পরিবারের সঙ্গে যেমন সময় কাটচ্ছেন, একই  সঙ্গে মানসিক এবং শারীরিক ভাবে প্রস্তুতি নিচ্ছেন আগামী অস্ট্রেলিয়া সফরের জন্যও। এশিয়া কাপেও বিশ্রাম দেওয়া হয়েছিল তাঁকে। যা নিয়ে ব্রডকাস্টাররা আপত্তি জানালেও বিসিসিআই দাঁড়িয়ে ছিল বিরাটের পাশেই। তবে এবার বোধহয় সেটা হবে না। এই প্রথম বিরাট কোহলির অনুরোধ হয়ত মানতে পারবে না ভারতীয় ক্রিকেট কন্ট্রোল বোর্ড।

আরও পড়ুন- 'গাধা' নিয়ে চলছে পাকিস্তান ক্রিকেটে প্রবল বিতর্ক

কমিটি অব অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের সঙ্গে বৈঠকে বিরাটের অভূতপূর্ব অনুরোধ, বিশ্বকাপের আগে বিশ্রাম দেওয়া হোক যশপ্রীত বুমরাহ এবং ভুবনেশ্বর কুমারদের মতো স্ট্রাইক বোলারদের। তাঁদের যেন আইপিএল খেলতে না হয়, বোর্ড কর্তাদের কাছে এই অনুরোধই করেছেন তিনি।

আরও পড়ুন- বিরাট আফশোস অনুষ্কার : বিয়ের পরেও একে অপরের সঙ্গে খুব কম সময়ই কাটাতে পারি

সূত্রের খবর, বিরাটের অনেক কথাই বোর্ড রেখেছে, তবে এই বিষয়টা নিয়ে এখনই কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। আগামী বছর ৩০মে ইংল্যান্ডে শুরু হবে ক্রিকেট মহারণ। চলবে ১৪ জুলাই পর্যন্ত। এদিকে নতুন বছরে এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহেই আইপিএল হওয়ার কথা। সেক্ষেত্রে বিশ্বকাপের আগে খুব অল্প সময়ই বিশ্রাম পাবে বোলাররা। শারীরিক ধকলের কারণে, বিলেতে গিয়ে নিজেদের সেরাটা উজাড় করে দিতে পারবেন না স্পিডস্টাররা, এই আশঙ্কা থেকেই স্ট্রাইক বোলারদের আইপিএল না খেলার পরামর্শ দিয়েছেন ভারত অধিনায়ক। যদিও ব্যাটসম্যানদের বিশ্রামের ব্যপারে কোনও কথাই বলেননি বিরাট, রোহিত, অজিঙ্কা রাহানেরা।

আরও পড়ুন- এক ওভারে ৪৩ রান, রেকর্ড

ওয়াকিবহাল মহল মনে করছে, বিরাটের এই অনুরোধ কোনও ভাবেই মানা সম্ভব নয় বিসিসিআইয়ের। কারণ, আইপিএল ফ্রেঞ্জাইজি কখনই চাইবে না কোটি কোটি টাকা ব্যয় করে যে ক্রিকেটারদের তারা দলে সামিল করেছে, তাদের গোটা সিজনই বিশ্রামে রাখা হোক। সেক্ষেত্রে বিসিসিআই এবং আইপিল ফ্রেঞ্চাইজিগুলোর সঙ্গে নতুন করে সংঘাতের আশঙ্কাই করছেন অনেকে।