শুভেন্দুকে 'সবার সামনে উলঙ্গ' করার হুমকি, তীব্র আক্রমণ অভিষেকের!

'১৫ দিন সময় দিলাম। এই কলেজের মাঠেই ফের সভা হবে। তোমার খাতা তুমি নিয়ে আসবে, আমি আমার খাতা নিয়ে আসব।' সেইসঙ্গে এলাকাবাসীদের হেনস্থার অভিযোগে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে মারিশদা ৫ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান, উপপ্রধান সহ অঞ্চল সভাপতিকে পদত্যাগেরও নির্দেশ দেন অভিষেক। 

Updated By: Dec 3, 2022, 04:57 PM IST
শুভেন্দুকে 'সবার সামনে উলঙ্গ' করার হুমকি, তীব্র আক্রমণ অভিষেকের!

শ্রেয়সী গঙ্গোপাধ্যায় ও প্রবীর চক্রবর্তী: কাঁথির প্রভাত কুমার কলেজের মাঠের সভামঞ্চ থেকে শুভেন্দু অধিকারীকে তুলোধনা করলেন অভিষেক। চাঁছাছোলা ভাষায় তীব্র আক্রমণ করলেন বিরোধী দলনেতাকে। হুমকি দিলেন, 'সবার সামনে উলঙ্গ'  করার! অভিষেকের কথায়, 'সবার সামনে উলঙ্গ করে দেহ। মানুষের সামনে উলঙ্গ যদি না করতে পারি, তবে আমি রাজনীতি ছেড়ে দেব।' শুভেন্দুর উদ্দেশে তোপ দাগলেন টেন্ডার দুর্নীতি নিয়ে।

এদিন কাঁথির সভায় অভিষেক বলেন, '২০১৫ সালে ১ কোটি ১৫ লাখ টাকার টেন্ডার বেরিয়েছিল। গার্লস হস্টেলের টেন্ডার হয়েছিল এই কলেজরই। ৮৫ লাখ টাকার বেশি পেমেন্টও হয়েছিল। কিন্তু তরুণিতা এন্টারপ্রাইজকে টেন্ডার ছাড়া অর্ডার দেওয়া হয়। একটা কনট্রাক্টর ও ইঞ্জিনিয়াকে দিয়ে নেক্সাস চালিয়েছে। একটা কন্ট্রাক্টরই সব জায়গায় কাজ পেয়েছে। ১৫ দিন সময় দিলাম। এই কলেজের মাঠেই ফের সভা হবে। তোমার খাতা তুমি নিয়ে আসবে, আমি আমার খাতা নিয়ে আসব। সবার সামনে উলঙ্গ করে দেব তোমায়।' প্রশ্ন তোলেন, 'অনীশ ঘোষ, সরকারি কর্মচারী, তাঁর কী করে কোটি কোটি টাকার সম্পত্তি থাকতে পারে?' তোপ দাগেন, 'এই অক্টোপাসের মাথা হচ্ছে শান্তিকুঞ্জ। সিবিআই, ইডি, এনআইএ-র নাম করে বেল করিয়ে দেবে বলে টাকা তুলছে।'

অভিষেক কটাক্ষ করেন, দুর্নীতি করে পিঠ বাঁচাতেই বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন শুভেন্দু। প্রশ্ন ছুঁড়ে দেন, 'টিভির পর্দায় কাকে ঘুষ নিতে দেখা গিয়েছে?' শুধু টেন্ডার নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগ-ই নয়, বিজেপির ডিসেম্বর ধামাকাকেও এদিন ঠুকেছেন অভিষেক। বলেন, 'যে বোমা কাঁথিতে ফেটেছে তার লক্ষ্য ছিলাম আমি। এবার বুঝলাম ডিসেম্বর ধামাকা কী!' প্রসঙ্গত, অভিষেকের সভার আগে ভূপতিনগরে বোমা ফেটে তৃণমূলের বুথ সভাপতি সহ ৩ জনের মৃত্য়ু হয়েছে। এদিন কাঁথির সভামঞ্চ থেকে বিজেপির ডিসেম্বর ধামাকার পালটা তৃণমূলের 'বেইমান তাড়াও' কর্মসূচির ঘোষণা করেন অভিষেক। বলেন, 'কাল থেকে বিশ্বাসঘাতক ও বেইমান মুক্ত মেদিনীপুর পালন হবে।' শুভেন্দুকে মেদিনীপুর ছাড়া করবেন বলেও হুঁশিয়ারি দেন তিনি।

পাশাপাশি, এটাও কাঁথিকে অধিকারী গড় বলা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন অভিষেক। সাফ জানান, 'এটা তৃণমূলের গড়।' তোপ দাগেন, কাঁথির সভামঞ্চে আসার পথে মারিশদার যে গ্রামে তিনি গিয়েছিলেন, সেখানকার বাসিন্দাদের অভিযোগ, অধিকারী পরিবার তাঁদের দিকে মুখ তুলেও তাকায়নি। একইসঙ্গে এলাকাবাসীদের হেনস্থার অভিযোগে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে মারিশদা ৫ নম্বর গ্রাম পঞ্চায়েতের প্রধান, উপপ্রধান সহ অঞ্চল সভাপতিকে পদত্যাগেরও নির্দেশ দেন অভিষেক। তাঁর স্পষ্ট কথা, 'যে দল-ই করুক না কেন, পরিষেবা সবাইকে দিতে হবে। যাঁরা এভাবে পঞ্চায়েত চালাবেন ভাবছেন, তাঁদের টিকিট দেওয়া তো দূরের বিষয়, প্রশাসনকে বলব ব্যবস্থা নিতে।'

আরও পড়ুন, 'এরকম চললে কাকে ভোট দেব?' মমতার স্টাইলেই কাঁথির পথে জনসংযোগে শুনলেন অভিষেক

(Zee 24 Ghanta App দেশ, দুনিয়া, রাজ্য, কলকাতা, বিনোদন, খেলা, লাইফস্টাইল স্বাস্থ্য, প্রযুক্তির লেটেস্ট খবর পড়তে ডাউনলোড করুন Zee 24 Ghanta App)