ঘর থেকে উদ্ধার স্বামীর ঝুলন্ত দেহ, খুনের অভিযোগে আটক মৃতের স্ত্রী

" বিয়ের পর থেকেই ওদের মধ্যে অশান্তি হত। গতকাল রাতেও এদের মধ্যে চরম অশান্তি হয়। " 

Edited By: অধীর রায় | Updated By: Aug 22, 2020, 02:22 PM IST
ঘর থেকে উদ্ধার স্বামীর ঝুলন্ত দেহ, খুনের অভিযোগে আটক মৃতের স্ত্রী
প্রতীকী ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদন : চুঁচুড়ার তালডাঙ্গা মোড়ে দত্তগলি এলাকায় শান্তুনু বিশ্বাস নামে এক যুবকের অস্বাভাবিক মৃত্যুকে ঘিরে পরিবারের মধ্যেই শুরু হয়েছে চাপানউতর। শান্তনুর পরিবারের অভিযোগ তাঁদের ছেলেকে খুন করা হয়েছে। আর অভিযোগের তির শান্তনুর স্ত্রী শুক্লা বিশ্বাসের দিকে।

জানা গিয়েছে, বিয়ের পর পরিবারের থেকে আলাদা হয়ে যায় শান্তনু এবং শুক্লা।  ছেলের মৃত্যু খবর পেয়ে সবাই ছুটে যায়। গিয়ে দেখে টিনের ঘরে গলায় দড়িতে ঝুলন্ত তাঁদের ছেলে। শান্তনুর বাবা গনেশ বিশ্বাসের দাবি," বিয়ের পর থেকেই ওদের মধ্যে অশান্তি হত। কারণে অকারণে আমার সঙ্গেও অশান্তি করত। গতকাল রাতেও এদের মধ্যে চরম অশান্তি হয়। আমার ছেলেকে খুন করে ঝুলিয়ে দিয়েছে।" 

 

শান্তনুর সেইরকম রোজগার ছিল না। আলাদা থাকলেও ওদের সংসার বাবাই চালাতেন। যখন যা পেতে সেই কাজ করত। লকডাউনে  রোজগার প্রায় ছিলনা। আর এই নিয়ে অশান্তি দিনদিন বাড়ছিল বলে পরিবারে অভিযোগ। একই বক্তব্য শান্তনুর কাকা যতীন বিশ্বাসের। তাঁর দাবি, " শান্তনু আত্মহত্যা করতে পারে না।  আমরা নিশ্চিত ওকে খুন করা হয়েছে। মৃত্যুর পর ওর বউ আমাদের খবর না দিয়ে বন্ধুদের খবর দেয়। সাঙ্গপাঙ্গ নিয়ে এসে আমাদের ছেলেকে খুন করেছে শুক্লা।"

এই অস্বাভাবিক মৃত্যুকে ঘিরে এলাকায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে। মৃতদেহ উদ্ধারের পর শান্তনুর পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে তাঁর স্ত্রী শুক্লা কে আটক করেছে চুঁচুড়া থানার পুলিস। সবদিক খতিয়ে দেখে তদন্ত শুরু করেছে।

আরও পড়ুন, ফেসবুকে কোচবিহারের যুবকের সঙ্গে প্রেম! মন্দিরে বিয়ে করে ২ স্বামীকে নিয়ে 'সংসার' বেহালার গৃহবধূর