শান্তিতে যৌথ জয় ভারত-পাকের

যৌথভাবে নোবেল শান্তি পুরস্কার পেল ভারত-পাকিস্তান। ভারতীয় সমাজকর্মী কৈলাশ সত্যার্থী পাচ্ছেন এ বছরের নোবেল শান্তি পুরস্কার।  শিশু অধিকার রক্ষা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই কাজ করে চলেছেন দিল্লির কৈলাশ সত্যার্থী। নিজের সংগঠন 'বচপন বাঁচাও আন্দোলন' নিয়ে ১৯৯০  সাল থেকে শিশুশ্রমের বিরুদ্ধে সক্রিয় কৈলাশ। এখনও পর্যন্ত প্রায় ৮০ হাজার শিশু শ্রমিককে পুনর্বাসিত করেছেন তিনি।

Updated By: Oct 10, 2014, 03:42 PM IST
শান্তিতে যৌথ জয় ভারত-পাকের

ওয়েব ডেস্ক: সীমান্তে যখন যুদ্ধ। তখন মৈত্রী শান্তির মঞ্চ। যৌথ ভাবে নোবেল শান্তি পুরষ্কার জয় ভারত-পাকিস্তানের। ভারতের শিশু অধিকার কর্মী কৈলাশ সত্যার্থী ও পাকিস্তানের মালালা ইউসুফজাইকে নোবেল শান্তি পুরষ্কারে সম্মানিত করল নোবেল কমিটি।

যৌথভাবে নোবেল শান্তি পুরস্কার পেল ভারত-পাকিস্তান। ভারতীয় সমাজকর্মী কৈলাশ সত্যার্থী পাচ্ছেন এ বছরের নোবেল শান্তি পুরস্কার।  শিশু অধিকার রক্ষা নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই কাজ করে চলেছেন দিল্লির কৈলাশ সত্যার্থী। নিজের সংগঠন 'বচপন বাঁচাও আন্দোলন' নিয়ে ১৯৯০  সাল থেকে শিশুশ্রমের বিরুদ্ধে সক্রিয় কৈলাশ। এখনও পর্যন্ত প্রায় ৮০ হাজার শিশু শ্রমিককে পুনর্বাসিত করেছেন তিনি। একই সঙ্গে নোবেল পাচ্ছেন পাকিস্তানের মালালা ইউসুফজাই। তালিবানি হামলার শিকার হন মালালা। তালিবানি শাসনের বিরুদ্ধে গিয়ে তাঁর শিক্ষাপ্রেম গোটা বিশ্বের কাছে দৃষ্টান্ত হয়ে রয়েছে।   

নোবেল কমিটির তরফ থেকে জানানো হয়েছে, ""এটা হিন্দু এবং মুসলিমদের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ, একজন ভারতীয় অন্যজন পাকিস্তানী। তাঁরা দু'জনে একসঙ্গে শিক্ষার পক্ষে ও হিংসার বিরুদ্ধে লড়াই করছেন।''

কমিটির কথায়, গান্ধীর মতকে কীভাবে অনুসরণ করা যায় তাই দেখিয়েছেন সত্যার্থী। বহু অহিংস আন্দোলনের নজির গড়েছেন তিনি। শিশু শিক্ষা ও অধিকারের পক্ষে লড়াই করেচলেছেন তিনি।

অন্যদিকে যে মেয়ের গল্প তাক লাগিয়ে দিয়েছিল তামাম দুনিয়াকে, সেই মাললা প্রসঙ্গে নোবেল শান্তি কমিটির মত, মালালার ঐতিহাসিক লড়াই মেয়েদের অধিকারের লড়াইয়ের নজির হয়ে উঠেছে।