হাওড়া পুরভোটের আগে দারুন ব্যস্ততা ছাপাখানায়

পুরভোটকে ঘিরে হাওড়ার ছাপাখানাগুলিতে  দারুন ব্যস্ততা। অর্ডার সময় মতো পৌঁছে দিতে নাওয়াখাওয়া ভুলে কাজ করছেন ছাপাখানার কর্মীরা। হরেকরকমের ফ্লেক্সের অর্ডার দিচ্ছে রাজনৈতিক দলগুলি। রয়েছে ব্যানারের অর্ডারও।  একসময় ভোটপ্রচারের অন্যতম উপায় ছিল দেওয়াল লিখন, পোস্টার। কিন্তু সেদিন এখন অতীত। ফলে চাহিদা অনুযায়ী ফ্লেক্স, ব্যানারের যোগান দিতে দম ফেলার ফুরসত্ নেই ছাপাখানার কর্মীদের।

Updated By: Nov 17, 2013, 12:17 PM IST

পুরভোটকে ঘিরে হাওড়ার ছাপাখানাগুলিতে  দারুন ব্যস্ততা। অর্ডার সময় মতো পৌঁছে দিতে নাওয়াখাওয়া ভুলে কাজ করছেন ছাপাখানার কর্মীরা। হরেকরকমের ফ্লেক্সের অর্ডার দিচ্ছে রাজনৈতিক দলগুলি। রয়েছে ব্যানারের অর্ডারও।  একসময় ভোটপ্রচারের অন্যতম উপায় ছিল দেওয়াল লিখন, পোস্টার। কিন্তু সেদিন এখন অতীত। ফলে চাহিদা অনুযায়ী ফ্লেক্স, ব্যানারের যোগান দিতে দম ফেলার ফুরসত্ নেই ছাপাখানার কর্মীদের।
ছাপাখানায় জোর ব্যস্ততা। দিনরাত এককরে কাজ চলছে হাওড়ার একাধিক ছাপাখানায়। উপলক্ষ্য ভোট। ভোটের বাজারে প্রচারকে ঝা চকচকে করতে ফ্লেক্সের চাহিদা এখন বেশ বেশি। প্রায় সব রাজনৈতিক দলই চাইছে ফ্লেক্স। ফ্লেক্সের সঙ্গে চলছে ভালমানের ব্যানার তৈরির কাজ। ফলে ডবল ডিউটি করে বাড়ি ফিরছেন ছাপাখানার কর্মীরা।
২২ নভেম্বর হাওড়া পুরসভার ভোট। তর আগে প্রচারে শান দিতে চাইছে ডান, বাম সব দল। ভোটের প্রচার আর শুধু দেওয়াল লিখন, পোস্টার সীমাবদ্ধ নেই। ফলে বাজারে ফ্লেক্সের চাহিদা বেশি। ভোটকে কাজে লাগিয়ে বাড়তি আয় করে নিচ্ছে ছাপাখানাগুলি।