ধর্ষণের অভিযোগ আনার শাস্তি ১৬ মাসের জেল

ধর্ষণের অভিযোগ আনার শাস্তি ১৬ মাসের জেল

ধর্ষণের অভিযোগ আনার শাস্তি ১৬ মাসের জেল করতে গিয়েছিলেন ধর্ষণের অভিযোগ। উল্টে তাঁকেই বিবাহ বহির্ভুত শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হওয়ার জন্য ঢুকিয়ে দেওয়া হল জেলে। এমনই ঘটনার সাক্ষা রইল দুবাই। ধর্ষণের অভিযোগ আনেন দুবাই প্রবাসী ২৪ বছরের নরওয়ে বংশোদ্ভুত এক মহিলা। কিন্তু আইনের উর্ধ্বে গিয়ে ইসলাম ধর্মের নিয়ম লঙ্ঘনের জন্য তাঁকেই ১৬ মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

পেশায় ইন্টিরিওর ডিজাইনার ওই মহিলা জানান, আমাকে এই খবর সব জায়গায় ছড়িয়ে দিতে হবে। আমার শাস্তি ঘোষণার পর মনে হচ্ছে, এর থেকে খারাপ আর কী হতে পারে? আপাতত আগামী সেপ্টেম্বর মাসের শুরুতে আদালতে আবেদন করার জন্য তৈরি হচ্ছেন তিনি। ২০০১ সাল থেকে কাতারে ইন্টিরিওর ডিজাইনারের কাজ করতেন অভিযোগকারিনী। গত মার্চ মাসে দুবাই মাসে একটি মিটিংয়ে যোগ দিতে এসেছিলেন তিনি। তখনই সহকর্মী তাঁকে ধর্ষণ করে বলে অভিযোগ করেছেন তিনি। হোটেলের লবিতে পালিয়ে এসে হোটেলের কর্মীদেরই পুলিস ডাকতে বলেন এই মহিলা। এরপর শারীরিক পরীক্ষাও হয় তাঁর।

বিবাহ বহির্ভুত শারীরিক সম্পর্কে অভিযোগে তাঁকে ৪ দিন আটক রাখা হয়। এই সময়ের মধ্যেই জেলের অন্য এক মহিলার ফোন থেকে উনি নরওয়েতে নিজের সত্ বাবার সঙ্গে যোগাযোগ করেন। তাঁর বাবাই নরওয়ে দূতাবাসের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। দূতাবাসের সাহায্যেই জেল থেকে ছাড়া পান তিনি। আপাতত তিনি তাদের তত্ত্বাবধানেই রয়েছেন। অভিযুক্ত ব্যক্তিকেও বিবাহ বহির্ভুত শারীরিক সম্পর্কে লিপ্ত হওয়ার জন্য ১৩ মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

তবে এই প্রথম নয়। এর আগেও দুবাইতে ধর্ষণের অভিযোগ আনায় এরকমই শাস্তির মুখে পড়তে হয়েছে অন্য মহিলাদেরও।


First Published: Sunday, July 21, 2013, 19:13


comments powered by Disqus