দিল্লি ফের শূন্য হাতে ফেরাল, তবু জমি নীতিতে মমতা একরোখাই

দিল্লিতে শিল্প সম্মেলন সেরে রাজ্যে ফিরেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। স্বাভাবিক ভাবেই প্রশ্ন উঠেছে, কী নিয়ে ফিরলেন মুখ্যমন্ত্রী? তাঁর চেয়েও বড় প্রশ্ন, আদৌ কী আশাপ্রদ কিছু নিয়ে ফিরতে পারলেন তিনি? 

Updated: Dec 19, 2012, 03:55 PM IST

দিল্লিতে শিল্প সম্মেলন সেরে রাজ্যে ফিরেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। স্বাভাবিক ভাবেই প্রশ্ন উঠেছে, কী নিয়ে ফিরলেন মুখ্যমন্ত্রী? তাঁর চেয়েও বড় প্রশ্ন, আদৌ কী আশাপ্রদ কিছু নিয়ে ফিরতে পারলেন তিনি? 
রাজ্য সরকারের দাবি, শিল্পপতিরা বাংলায় লগ্নির বিষয়ে ইতিবাচক বার্তা দিয়েছেন। কিন্তু জমিনীতির গেরোয় আটকে থাকা রাজ্যে এই দাবি কতটা যুক্তিযুক্ত, তা নিয়ে প্রশ্ন থাকছেই। মুখ্যমন্ত্রীর একরোখা মানসিকতার কারণে জমি নীতির ফাঁসে আটকে রাজ্য। বিনিয়োগে খরা চলছে। তা সত্ত্বেও, রাজ্য সরকার শিল্পের জন্য জমি অধিগ্রহণ করবে না, এই দাবিতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় অনড়। বিজয়া সম্মিলনী থেকে দিল্লিতে ফিকির সম্মেলন, এমনকি শেষ শিল্প বৈঠক পর্যন্ত নিট ফল কার্যত শূন্য। কারণ ল্যান্ডব্যাঙ্ক থেকে জমি দেওয়া ছাড়া আর কোনও ভরসার কথা মুখ্যমন্ত্রী শিল্পপতিদের শোনাতে পারেননি। আবার বড় শিল্পের জন্য এক লপ্তে নেওয়ার মতো জমিও রাজ্যের হাতে নেই। জমির উর্ধ্বসীমা আইনেও ছাড়ের কথা ঘোষণা করেননি মুখ্যমন্ত্রী। আর্থিক সংস্কার নিয়েও কোনও ইতিবাচক বার্তা তিনি দিতে পারেননি। এমনটাই মত শিল্পমহলের। আস্থা অর্জন করতে না পারার প্রতিফলন ধরা পড়েছে শিল্পবৈঠকে। দেশের বড় বড় শিল্প সংস্থার যে সব প্রতিনিধি, তাঁরা প্রায় সকলেই ওই বৈঠকে অনুপস্থিত ছিলেন।