'এত ছোট শিশুর শ্লীলতাহানির প্রশ্নই ওঠে না', দাবি কারমেলে যৌননিগ্রহে ধৃত নৃত্যশিক্ষকের

কলকাতার নামী কারমেল স্কুলে দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রীকে যৌন নিগ্রহের ঘটনায় অভিযুক্ত নৃত্যশিক্ষক সৌমেন রানাকে সাসপেন্ড করল স্কুল। একইসঙ্গে অভিযুক্ত শিক্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিস। তার বিরুদ্ধে পসকো আইনে মামলা রুজু হয়েছে।

Updated: Feb 9, 2018, 04:36 PM IST
'এত ছোট শিশুর শ্লীলতাহানির প্রশ্নই ওঠে না', দাবি কারমেলে যৌননিগ্রহে ধৃত নৃত্যশিক্ষকের

নিজস্ব প্রতিবেদন : কলকাতার নামী কারমেল স্কুলে দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রীকে যৌন নিগ্রহের ঘটনায় অভিযুক্ত নৃত্যশিক্ষক সৌমেন রানাকে সাসপেন্ড করল স্কুল। একইসঙ্গে অভিযুক্ত শিক্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিস। তার বিরুদ্ধে পকসো আইনে মামলা রুজু হয়েছে।

জানা গেছে, ২০১৭-র ১৭ জুলাই কারমেল স্কুলে অস্থায়ী নৃত্যশিক্ষক হিসেবে যোগ দেন সৌমেন। অভিযোগ, গত একবছর ধরে দ্বিতীয় শ্রেণির এক ছাত্রীর উপর লাগাতার যৌন নির্যাতন করেছেন তিনি। এমনকি ঘটনার কথা বাইরে জানালে খুনের হুমকিও দেন সৌমেন। যদিও সব অভিযোগই অস্বীকার করেছেন অভিযুক্ত সৌমনে রানা।

তাঁর সাফ দাবি, "আমি কোনও শ্লীলতাহানি করিনি। কোনও অবস্থাতেই এত ছোট শিশুর শ্লীলতাহানির কোনও প্রশ্ন ওঠে না।" তাঁর আরও দাবি, কোনও ক্লাস নয়, খোলা জায়গায় নাচের ক্লাস নিচ্ছিলেন তিনি। ওই শিশুটি খুব দুষ্টুমি করায়, তাকে দাঁড় করিয়ে রাখা হয়। ক্লাস শেষে সবাই চলে যাওয়ার পর ওই শিশুটিকেও ছেড়ে দেওয়া হয়।

আরও পড়ুন, জিডি বিড়লার ছায়া কারমেলে, দ্বিতীয় শ্রেণির ছাত্রীকে টানা একবছর ধরে যৌননিগ্রহ নৃত্যশিক্ষকের

উল্লেখ্য, স্কুলছাত্রীকে যৌননিগ্রহের অভিযোগকে ঘিরে শুক্রবার সকাল থেকেই উত্তপ্ত হয়ে ওঠে কারমেল স্কুল চত্বর। অভিযুক্তের শাস্তির দাবিতে স্কুলে বিক্ষোভে ফেটে পড়েন অভিভাবকরা।

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. You can find out more by clicking this link

Close