গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব রুখতে দায়িত্ব মুকুলকে

পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে উত্তর ২৪ পরগনায় তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব কাটিয়ে সংগঠনকে আরও জোরদার করতে মুকুল রায়কে দায়িত্ব দেওয়া হচ্ছে। আজ সকালে কালীঘাটে নিজের বাসভবনে জেলার সাংসদ-বিধায়ক এবং ব্লক সভাপতিদের নিয়ে এক বিশেষ বৈঠকে করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বৈঠকে জেলার গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন তিনি।

Updated: Nov 30, 2012, 02:22 PM IST

পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে উত্তর ২৪ পরগনায় তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব কাটিয়ে সংগঠনকে আরও জোরদার করতে মুকুল রায়কে দায়িত্ব দেওয়া হচ্ছে। আজ সকালে কালীঘাটে নিজের বাসভবনে জেলার সাংসদ-বিধায়ক এবং ব্লক সভাপতিদের নিয়ে এক বিশেষ বৈঠকে করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বৈঠকে জেলার গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেন তিনি।
গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব যাতে কোনওভাবেই পঞ্চায়েত নির্বাচনে প্রভাব ফেলতে না পারে সেজন্যই মুকুল রায়কে বাড়তি দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। জেলার সংখ্যালঘু ভোটব্যাঙ্ক অটুট রাখার জন্যও বেশকিছু নির্দেশ দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। সংখ্যালঘু উন্নয়নে বসিরহাট মহকুমায় বিশেষ গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে। একইসঙ্গে সরকারের বিভিন্ন প্রকল্পের অগ্রগতি পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে প্রচারে নিয়ে আসারও পরামর্শ দিয়েছেন তৃণমূল নেত্রী।
এই বৈঠকেই দলত্যাগের প্রবণতা বৃদ্ধি পাচ্ছে বলে কার্যত স্বীকার করে নিলেন  মুখ্যমন্ত্রী। এই প্রণবতা রুখতে অবিলম্বে ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। উত্তর ২৪ পরগনার বসিরহাট, মিঁনাখা, সন্দেশখালি, দেগঙ্গায় বহু সংখ্যক কর্মী তৃণমূল ছেড়ে অন্য দলে যোগ দিচ্ছেন বলে দলীয় সূত্রে খবর। এদের অধিকাংশই সিপিআইএম ও কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েছিলেন।
উত্তর ২৪ পরগনার সাংসদ-বিধায়ক ও ব্লক সভাপতিদের সঙ্গে বৈঠকে এই বিষয়ে আলোচনা করেন মুখ্যমন্ত্রী। পঞ্চায়েত ভোটের আগে দল ছাড়ার এই প্রবণতা রুখতে কড়া পদক্ষেপ নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। কেন দল ছাড়ার ঘটনা ঘটছে তা খুঁজে বার করার পাশাপাশি সমস্যা মেটানোরও নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এব্যাপারে মুকুল রায়কে বাড়তি দায়িত্বও দেওয়া হয়েছে।