ডিএ মামলায় রাজ্য সরকারের হলফনামা তলব স্যাটের

বর্তমানে কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের তুলনায় রাজ্য সরকারি কর্মীরা ৪৭ শতাংশ কম ডিএ পান। ডিএ বৈষম্য নিয়ে প্রশ্ন তোলে সরকারি কর্মীদের দুটি সংগঠন।

Updated: Sep 12, 2018, 01:48 PM IST
ডিএ মামলায় রাজ্য সরকারের হলফনামা তলব স্যাটের

নিজস্ব প্রতিবেদন : ডিএ মামলায় নড়েচড়ে বসল স্যাট বা স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইবুনাল। ডিএ মামলায় অবিলম্বে হলফনামা জমা দেওয়ার জন্য রাজ্য সরকারকে নির্দেশ দিলেন স্যাট-এর বিচারপতি। আগামী ২৪ সেপ্টেম্বরের মধ্যে হলফনামা জমা দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য হয়েছে ৪ অক্টোবর।

আরও পড়ুন, ভূমিকম্পে কেঁপে উঠল কলকাতা-সহ একাধিক জেলা

উল্লেখ্য, ১ সেপ্টেম্বর হাইকোর্ট রায় দেয়, ডিএ কোনও দয়ার দান নয়। মহার্ঘভাতার অধিকার আইনি অধিকার। রোপা আইন অনুযায়ী একজন রাজ্য সরকারি কর্মচারী ডিএ পেয়ে থাকেন। পঞ্চম বেতম কমিশনের সুপারিশ মেনে ২০০৯ সালে তৈরি হয়েছিল এই ওয়েস্ট বেঙ্গল সার্ভিসেস রিভিশন অফ পে অ্যান্ড অ্যালাওয়েন্স রুলস বা রোপা আইন। পাশাপাশি, একজন রাজ্য সরকারি কর্মচারী কী হারে ডিএ পাবেন, আগামী ২ মাসের মধ্যে সেবিষয়ে সিদ্ধান্ত নিতে নির্দেশ দেওয়া হয় স্যাটকে। হাইকোর্টের সেই নির্দেশের পরই ডিএ মামলায় ফের নড়েচড়ে বসে স্যাট। এদিন শুনানির পর রাজ্য সরকারের কাছ থেকে চাওয়া হল হলফনামা।

আরও পড়ুন, মাঝেরহাট বিপর্যয়ের জের : যানজট মোকাবিলায় পথে ওসিরা

প্রসঙ্গত, বকেয়া ডিএ নিয়ে ২০১৬-র ২১ নভেম্বর স্যাটে মামলা করেছিলেন সরকারি কর্মীরা। গত বছর ফেব্রুয়ারিতে স্টেট অ্যাডমিনিস্ট্রেটিভ ট্রাইব্যুনাল রায় দিয়েছিল, মহার্ঘ ভাতা দয়ার দান। ডিএ দেওয়া বা না দেওয়া সম্পূর্ণটাই নির্ভর করে সরকারের উপর। সেই রায় ঘিরেই বিতর্ক মাথাচাড়া দেয়। আদালতের সেই রায়কে চ্যালেঞ্জ করে গত বছর মার্চে হাইকোর্টে মামলা করে একাধিক কর্মী সংগঠন। দেড় বছরের শুনানির পর ১ সেপ্টেম্বর ডিএ মামলার রায় ঘোষণা করে হাইকোর্টের বিচারপতি দেবাশিস করগুপ্ত ও বিচারপতি শেখর ববি শরাফের ডিভিশন বেঞ্চ। হাইকোর্টের রায়ে খারিজ হয়ে যায় স্যাটের রায়।

আরও পড়ুন, প্রেন্সিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম সমাবর্তন, বিতর্কের জেরে বঞ্চিত হলেন পড়ুয়ারা-ই

সেইসঙ্গে বর্তমানে কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের তুলনায় রাজ্য সরকারি কর্মীরা ৪৭ শতাংশ কম ডিএ পান। ডিএ বৈষম্য নিয়ে প্রশ্ন তোলে সরকারি কর্মীদের দুটি সংগঠন। প্রশ্ন ওঠে, অন্য রাজ্যে কর্মরত রাজ্য সরকারি কর্মীরা কেন কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের সমহারে ডিএ পাবেন অথচ এরাজ্যে কর্মরতরা বঞ্চিত হবেন? ১ সেপ্টেম্বরের রায়ে সেই বিষয়েও দ্রুত সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য স্যাটকে নির্দেশ দেয়  ডিভিশন বেঞ্চ। রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা কত হারে ডিএ পাবেন? কেন্দ্রের হারেই রাজ্য সরকারি কর্মীদের মহার্ঘভাতা দেওয়া হবে কি না? সেই বিষয়ে ২ মাসের মধ্যে সিদ্ধান্ত নিতে বলা হয় স্যাটকে। প্রসঙ্গত, চেন্নাই, দিল্লিতে কর্মরত রাজ্য সরকারি কর্মচারীরা কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মীদের সমহারে ডিএ পেয়ে থাকেন।

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. You can find out more by clicking this link

Close