বিদায়বেলার 'কথা' ৩০ বছর আগেই লিখেছিলেন করুণানিধি

মেরিনা সমুদ্রসৈকতে সমাধিস্থ করা হবে কলাইনারকে। 

Updated: Aug 8, 2018, 05:44 PM IST
বিদায়বেলার 'কথা' ৩০ বছর আগেই লিখেছিলেন করুণানিধি

নিজস্ব প্রতিবেদন: তিরিশ বছর আগে করুণানিধি লিখেছিলেন, 'ওইভু এডুকমল উজহাইতহভন, ইডো ওইভু ইডুথু কোন্দু ইরুকিরন', তামিল এই লেখার বাংলা অনুবাদ করলে দাঁড়ায়, 'বিশ্রাম না নিয়ে যিনি কঠোর পরিশ্রম করেছেন, সেই ব্যক্তি শান্তিতে শায়িত আছেন এখানে'। তামিলনাড়ুর প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীর লেখা এই লাইন শোভিত হয়েছে সোনালি কাসকেট বা কফিনে। এই কাসকেটেই  করুণানিধির দেহ নিয়ে যাওয়া হবে মেরিনা সমুদ্রসৈকতে। 

টুইটারে করুণানিধির পুত্র এমকে স্টালিন বাবাকে নিয়ে লেখেন, ''তিরিশ বছর আগে তুমি চেয়েছিল, তোমার সমাধিতে লেখা থাকবে, বিশ্রাম ছাড়াই যিনি কঠোর পরিশ্রম করেছেন, তিনি শায়িত রয়েছেন এখানে।''           

কলাইনার শুধু রাজনীতিকই ছিলেন না, মাত্র ২০ বছর বয়স থেকে তামিল ছবির চিত্রনাট্য লিখতেন তিনি। 

তামিলনাড়ুর প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা করুণানিধির রাজনৈতিক গুরু সিএন আন্নাদুরাইয়ের সমাধির পাশেই সমাহিত করা হবে কলাইনারকে। তবে মেরিনা সমুদ্রসৈকতে করুণানিধির সমাধি নিয়ে আপত্তি জানিয়েছিল তামিলনাড়ু সরকার। তা নিয়ে একপ্রস্ত রাজনীতিও হয়। রাজ্যের বেশ কয়েক জায়গায় ভাঙচুর করেন ডিএমকে সমর্থকরা। তবে রাজ্য সরকারের নির্দেশ খারিজ করে মেরিনা সমুদ্রসৈকতে করুণানিধির দেহ সমাহিত করার অনুমতি দেয় মাদ্রাজ হাইকোর্ট। ডিএমকে জানায়, ৬ ফুট জমি নিতে অস্বীকার করে রাজনৈতিক প্রতিহিংসা চরিতার্থ করেছে এআইডিএমকে।   

প্রসঙ্গত, এই মেরিনা সমুদ্র সৈকতেই শেষকৃত্য হয়েছিল এমজিআরের। ২০১৬ সালের ডিসেম্বরে সেখানেই সমাধিস্থ করা হয় তামিল রাজনীতির ‘আম্মা’ জয়ললিতা-কেও। এবার তামিলনাড়ুর প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীদের সেই সারিতে এবার আর এক প্রাক্তন করুণানিধি। 

বুধবার সকালে দেশের সবকটি রাজনৈতিক দলের নেতানেত্রীরা ছুটে গিয়েছেন চেন্নাইয়ে। তামিলনাড়ুর প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রীকে শেষ শ্রদ্ধা জানান প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। রাজাজি হলে করুণানিধির কফিনে ফুল দিয়ে মাথা ঠেকিয়ে শ্রদ্ধা জানান প্রধানমন্ত্রী। এরপর কানিমোঝি ও স্ট্যালিনের সঙ্গে কথা বলেন। তাঁদের সান্তনা দেন। টুইটারে মোদী লেখেন, করুণানিধির অগণিত ভক্ত ও তার পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছি। গোটা দেশ, বিশেষ করে তামিলনাড়ু এই মহান নেতার অভাব বোধ করবে। আঞ্চলিক রাজনীতির ক্ষেত্রে একটি বড় নাম করুণানিধি। তামিলনাড়ুর মানুষের কথা দেশবাসীর কাছে তুলে ধরতে সফল হয়েছিলেন করুণানিধি। 

করুণানিধিকে শেষ শ্রদ্ধা জানান রাহুল গান্ধী, তামিল সুপারস্টার রজনীকান্ত, কমল হাসান প্রমুখ। এরাজ্য থেকে ছুটে গিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও।                              

আরও পড়ুন- করুণানিধির শেষকৃত্য নিয়ে তামিল সরকারের সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ মমতা ফোন করলেন মোদীকে

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. You can find out more by clicking this link

Close