প্রধানমন্ত্রীকে পদত্যাগ দিতে চাইলেন রেলমন্ত্রী

Last Updated: Saturday, May 4, 2013 - 10:01

ভাগ্নের ঘুষ নেওয়ার ঘটনায় প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করে পদত্যাগের ইচ্ছা প্রকাশ করলেন রেলমন্ত্রী পবন কুমার বনশল। তবে সুত্রের খবর, প্রধানমন্ত্রী তাঁর পদত্যাগ প্রস্তাব গ্রহণ করেননি।
মনে করা হচ্ছে, শনিবার বিকেলের কংগ্রেস কোর গ্রুপের বৈঠকে বনশলের ভাগ্য বিবেচনা করা হতে পারে। যদিও কেন্দ্রীয় রেলমন্ত্রী পবন কুমার বনশল ঘুষ নেওয়ার অভিযোগে ধৃত বিজয়কুমার সিংগলার সঙ্গে তাঁর কোনও ব্যবসায়িক সম্পর্ক নেই। এভাবেই নিজের ভাগ্নের থেকে দূরত্ব বজায় রাখার চেষ্টা করলেন রেলমন্ত্রী পবনকুমার বনশল। একইসঙ্গে সিবিআইকে দিয়ে ঘটনার বিশদ তদন্তের দাবি তুলেছেন রেলমন্ত্রী।
শুক্রবার রাত চন্ডীগড়ে নিজের বাড়িতে ঘুষ নেওয়ার সময় তাঁকে হাতে নাতে ধরে ফেলেন গোয়েন্দারা। উদ্ধার হয়েছে মহেশ কুমারের পাঠানো ঘুষের ৯০ লক্ষ টাকাও। ঘটনাস্থল থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে মঞ্জুনাথ নামে এক ব্যক্তিকেও। অভিযোগ মঞ্জুনাথের মাধ্যমেই সিংলাকে টাকা পাঠিয়েছিলেন মহেশ কুমার। মুম্বই থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে মহেশ কুমারকেও। এ ছাড়াও সিংলা এবং মহেশ কুমারের আর্থিক লেনদেনও মধ্যস্থতা করার অভিযোগে গ্রেফতার হয়েছেন বিনয় গোয়েল নামে আরও এক ব্যক্তি। ধৃত চারজনের বিরুদ্ধে দুর্নীতদমন আইন এবং ভারতীয় দণ্ডবিধির একাধিক ধারায় মামলা রজু করেছে সিবিআই। একের পর এক দুর্নীতির অভিযোগে নাজেহাল ইউপিএ সরকার। এই পরিস্থিতিতে খোদ রেলমন্ত্রীর আত্মীয় ঘুষ নেওয়ার অভিযোগে গ্রেফতার হওয়ার ঘটনা কংগ্রেসকে আরও অস্বস্তির মুখে ঠেলে দিল।



First Published: Saturday, May 4, 2013 - 15:00


comments powered by Disqus