ব্যাঘ্র প্রকল্পের কোর এলাকায় পর্যটন নিষিদ্ধ করল সুপ্রিম কোর্ট

Last Updated: Tuesday, July 24, 2012 - 22:52

ব্যাঘ্র প্রকল্পের কোর এলাকায় পর্যটন বন্ধের নির্দেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট। শীর্ষ আদালতের নির্দেশে বলা হয়েছে, এখন থেকে বাঘের কোর এলাকায় কোনও পর্যটককে যেতে দেওয়া যাবে না। প্রতিটি রাজ্যকে ব্যাঘ্র প্রকল্পে চিহ্নিত করতে হবে বাফার জোন। ইতিমধ্যেই বাফার জোন চিহ্নিত করতে না পারায় কয়েকটি রাজ্যকে আর্থিক জরিমানাও করেছে সর্বোচ্চ আদালত।
ব্যাঘ্র প্রকল্পের কোর এলাকায় পর্যটন নিয়ে বিতর্ক দীর্ঘদিনের। অবশেষে এই সব এলাকায় পর্যটন বন্ধ করতে কড়া নির্দেশ দিল সুপ্রিম কোর্ট। চোরাশিকারিদের হাত থেকে বাঘেদের রক্ষা করতে সব রকম পর্যটন বন্ধের নির্দেশ দিয়েছে সুপ্রিম কোর্টের  বিচারপতি এস কুমার এবং ইব্রাহিম কালিফুল্লার ডিভিশন বেঞ্চ। চোরাশিকারিদের দাপটে ভারতে অনেকটাই কমে গিয়েছে বাঘের সংখ্যা। বিপন্ন প্রজাতির এই প্রাণীকে বাঁচাতে প্রণয়ন করা হয়েছে কঠোর আইন। এখনও সম্পূর্ণ নিয়ন্ত্রণে আনা যায়নি চোরাশিকার। গত কয়েকমাসে দেশের ব্যাঘ্র প্রকল্পগুলিতে এমন অনেক ঘটনা ঘটেছে যা শুনলে শিউরে উঠতে হয়।
মে মাসে কর্ণাটকের দান্দেলি আংশি ব্যাঘ্র প্রকল্পে সন্দেহভাজন চোরাশিকারদের হাতে এক ফরেস্ট অফিসারের মৃত্যু হয়। ওই একই মাসে মহারাষ্ট্রের তাডোবা অন্ধেরি ব্যাঘ্র প্রকল্পে একটি টুকরো টুকরো করে কাটা বাঘের দেহ উদ্ধার হয়। করবেট ন্যাশানাল পার্কেও দেখা দিয়েছে চোরাশিকারের আশঙ্কা। সুন্দরবনে পর্যটন হয় না। কিন্তু রণথম্বোরের মত এমন অনেক ব্যাঘ্র প্রকল্প রয়েছে যেখানে পর্যটকদের অবাধ যাতায়াত। এই পরিস্থিতিতে দেশের সর্বোচ্চ আদালত সব রাজ্যকে ব্যাঘ্র প্রকল্প এলাকায় বাফার জোন নির্ধারিত করারও নির্দেশ দিয়েছে। সেক্ষেত্রে কোনও রাজ্য যদি ব্যাঘ্র প্রকল্পের বাফার জোন নির্দিষ্ট করতে ব্যর্থ হয় সেক্ষেত্রে তাদের বড় অঙ্কের জরিমানারও নির্দেশ দিয়েছে সুপ্রিম কোর্টের দুই সদস্যের ডিভিশন বেঞ্চ। ইতিমধ্যেই এ নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ পালন না করার জন্য অন্ধ্রপ্রদেশ, অরুনাচল প্রদেশ, তামিলনাডু, বিহার, মহারাষ্ট্র এবং ঝাড়খন্ডকে আর্থিক জরিমানাও করা হয়েছে।   



First Published: Tuesday, July 24, 2012 - 22:54


comments powered by Disqus