মালিয়াকে ভারতে প্রত্যর্পণের সিদ্ধান্ত ১০ ডিসেম্বর, জানাল ব্রিটেনের আদালত

বিজয় মালিয়াকে দেশে প্রত্যর্পণের জন্য আবেদন করেছে সিবিআই। ওই আবেদনকে ব্রিটেনের আদালতে চ্যালেঞ্জ করেন মালিয়া।

Updated: Sep 12, 2018, 09:47 PM IST
মালিয়াকে ভারতে প্রত্যর্পণের সিদ্ধান্ত ১০ ডিসেম্বর, জানাল ব্রিটেনের আদালত

নিজস্ব প্রতিবেদন: ভারতে বিজয় মালিয়াকে ফেরত পাঠানো হবে কিনা, সে ব্যাপারে ১০ ডিসেম্বর সিদ্ধান্ত নেবে ব্রিটেনের আদালত। ৯০০০ কোটি টাকার ঋণ খেলাপকারী মালিয়া বর্তমানে পলাতক। দেশ থেকে পালিয়ে ব্রিটেনে আশ্রয় নিয়েছেন মালিয়া। 

বুধবার মুম্বইয়ের জেলের ভিডিও দেখেন আদালতের বিচারপতি। মালিয়ার আইনজীবী ক্লেয়ার মন্টোগোমারির দাবি, জেলকে সাজিয়ে-গুছিয়ে ভিডিও তৈরি করা হয়েছে। তাঁর আরও দাবি, মালিয়ার বিরুদ্ধে মামলা দায়েরের জন্য ভারতীয় ব্যাঙ্কগুলিকে হুমকি দিয়েছে সিবিআই। সিবিআইকেও মামলা করার জন্য চাপ দেওয়া হয়েছে। ক্লেয়ার বলেন, ''ভারতীয় সরকারের পেশ করা জেলের ভিডিওটি ভাল করে লক্ষ্য করুন। দেওয়ালে রং করা হয়েছে। সম্ভবত বানানো হয়েছে নতুন শৌচাগারও। ভারতীয় জেলে আলো-বাতাস পৌঁছয় না''।

বিজয় মালিয়াকে দেশে প্রত্যর্পণের জন্য আবেদন করেছে সিবিআই। ওই আবেদনকে ব্রিটেনের আদালতে চ্যালেঞ্জ করেছেন মালিয়া। তাঁর দাবি, ভারতীয় জেলগুলির অবস্থা অমানবিক। তাঁর আবেদনের প্রেক্ষিতে ভারতীয় জেলের ভিডিও জমা দেওয়ার নির্দেশ দেন বিচারপতি। ইউরোপের মানবাধিকার কমিশনের নির্ধারিত মান ভারতীয় জেলে রয়েছে কিনা, তা খতিয়ে  দেখতে চায় আদালত। মালিয়ার আইনজীবী এদিন বলেন, মালিয়ার বিরুদ্ধে উপযুক্ত প্রমাণ দিতে ব্যর্থ হয়েছে ভারতীয় তদন্তকারী সংস্থা। সিবিআই জানায়স ইচ্ছাকৃতভাবে তথ্য লুকিয়েছে মালিয়ার কিংফিশার এয়ারলাইন্স। ঋণ নেওয়ার জন্য ব্যাঙ্কের কাছে ভুল তথ্য পেশ করেছিল ওই সংস্থা।

এদিন বিকেলে বিজয় মালিয়ার বক্তব্য নিয়ে দেশজুড়ে তোলপাড় পড়ে। লন্ডনে বিজয় মালিয়া জানান, দেশ ছাড়ার আগে অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলির সঙ্গে বৈঠক হয়েছিল তাঁর। এর কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই বিবৃতি জারি করে জেটলি জানান, মালিয়ার বক্তব্য তথ্যগতভাবে ভুল। ২০১৪ সাল থেকে কোনও দিন বিজয় মালিয়ার সঙ্গে কোনও আনুষ্ঠানিক বৈঠক করেননি তিনি। এরইসঙ্গে জেটলি মনে করিয়ে দেন,''রাজ্যসভার সাংসদ হওয়ার অবৈধ সুবিধা নিয়ে দেখা করেছিলেন বিজয় মালিয়া। রাজ্যসভা থেকে নিজের কক্ষে যাচ্ছিলাম। তখনই পিছন থেকে তাড়া করে ধরেন বিজয় মালিয়া। বলেন, আমি ব্যাঙ্কগুলির সঙ্গে রফা করতে চাই। মালিয়া এর আগেও যে এরকম প্রস্তাব দিয়ে শেষ পর্যন্ত শর্ত পালন করেননি তা আমার জানা ছিল। তাই মালিয়াকে বলি, আমাকে এসব বলে লাভ নেই যা বলার ব্যাঙ্ককে বলুন।
 
আনুষ্ঠানিক বৈঠক যে হয়নি তা মেনে নিয়েছেন বিজয় মালিয়া। তিনি জানান, অর্থমন্ত্রীর সঙ্গে সংসদে দেখা হয়েছিল। তাঁকে জানিয়েছিলেন লন্ডন রওনা হচ্ছেন। তবে ব্যাংকগুলির সঙ্গে সমঝোতায় আসতে চান।

আরও পড়ুন- মহাত্মাকে শ্রদ্ধাঞ্জলি দিতে 'স্বচ্ছতা হি সেবা' অভিযানের ঘোষণা নরেন্দ্র মোদীর

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. You can find out more by clicking this link

Close