হাত-পা বেঁধে মার স্ত্রী-শাশুড়ির, পুজোয় শ্বশুরবাড়ি ঘুরতে এসে ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতা জামাইয়ের

পুজোর ছুটিতে জামাই শ্বশুরবাড়িতে আসার পর থেকেই তাঁর কাছ থেকে নানা ছুতোয় টাকা চাইতে শুরু করেন স্ত্রী ও শাশুড়ি।

Updated: Oct 20, 2018, 07:01 PM IST
হাত-পা বেঁধে মার স্ত্রী-শাশুড়ির, পুজোয় শ্বশুরবাড়ি ঘুরতে এসে ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতা জামাইয়ের

নিজস্ব প্রতিবেদন : গার্হস্থ্য হিংসার 'উলটপুরাণ'। স্ত্রী ও শাশুড়ির হাতে নিগৃহীত জামাই। জামাইয়ের হাত-পা বেঁধে তাঁকে বেধড়ক মারধরের অভিযোগ উঠল স্ত্রী ও শাশুড়ির বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে বীরভূমের সিউড়িতে।

জানা গিয়েছে, জামাই পেশায় শিক্ষক। পুজোর ছুটিতে সিউড়ির অরবিন্দ পল্লিতে শ্বশুরবাড়িতে ঘুরতে এসেছিলেন জামাই। কিন্তু, সেখানে এসেই মুখোমুখি হলেন ভয়ঙ্কর অভিজ্ঞতার। স্ত্রী ও শাশুড়ির নির্যাতনের শিকার হলেন জামাই। এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে অরবিন্দ পল্লিতে। আটক করা হয়েছে স্ত্রী ও শাশুড়িকে।

আরও পড়ুন, গৃহশিক্ষকের সঙ্গে প্রেম-বিয়ে! 'সুখের দাম্পত্য' ঘুচল ৩ বছরেই

অভিযোগ, পুজোর ছুটিতে জামাই শ্বশুরবাড়িতে আসার পর থেকেই তাঁর কাছ থেকে নানা ছুতোয় টাকা চাইতে শুরু করেন স্ত্রী ও শাশুড়ি। বেশ কয়েক দফায় কয়েক হাজার টাকা স্ত্রীর হাতে তুলেও দেয় জামাই। কিন্তু তাতেও স্ত্রী বা শাশুড়ির দাবিদাওয়া কমেনি। এদিন সকালে প্রথমে ৩০ হাজার টাকা চান শাশুড়ি। তারপর আবার ১৫ হাজার টাকা চান স্ত্রী। কথা না বাড়িয়ে সেই টাকা দিয়েও দেন জামাই। কিন্তু তারপরই বাধে বিপত্তি।

আরও পড়ুন, দরজা খোলা, ঘরে পা রেখেই বিছানায় স্ত্রীকে এঅবস্থায় দেখে চমকে উঠলেন স্বামী

কীসের জন্য এতগুলো টাকা তাঁর কাছ থেকে নেওয়া হল, স্ত্রী ও শাশুড়ির কাছে সেই কারণ জানতে চান জামাই। আর তারপরই শুরু হয় মার। হাত-পা বেঁধে জামাইকে মারধর করেন স্ত্রী ও শাশুড়ি। যন্ত্রণায় চিত্কার করতে শুরু করেন জামাই। জামাইয়ের চিত্কারে ছুটে আসেন পাড়া-প্রতিবেশীরা। তাঁরাই গুরুতর জখম অবস্থায় জামাইকে উদ্ধার করে সিউড়ি সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন।

আরও পড়ুন, গ্রেফতার অভিযুক্ত, ব্যাঁটরায় ধর্ষণ-খুনের ঘটনায় উদ্ধার মৃতার পোশাক ও মোবাইল

এই ঘটনায় সিউড়ি থানায় স্ত্রী ও শাশুড়ির নামে লিখিত অভিযোগ করেন জামাই। সেই অভিযোগের ভিত্তিতেই আটক করা হয়েছে অভিযুক্ত স্ত্রী ও শাশুড়িকে। প্রতিবেশীদের অভিযোগ, এটাই প্রথম নয়। এর আগেও বেশ কয়েকবার মারধরের ঘটনা ঘটেছে। বারবার তাঁদেরকে সাবধান করেও লাভ হয়নি। অভিযুক্তদের কঠোর শাস্তির দাবি করেছেন জামাই ও প্রতিবেশীরা। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে সিউড়ি থানার পুলিশ।

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. You can find out more by clicking this link

Close