পাঁচ বছর বয়সে পাইলট হয়ে গিনিসবুকে চিনের দুষ্টু ছেলে

বেজিং ওয়াল্ডলাইফ পার্কের ওপর দিয়ে উড়ে গেল প্লেনটা। গত ৩১ অগাস্ট ৩৫ মিনিট ধরে আকাশে চক্কর কাটল সেটা। অবাক করা কথাটা হল পাইলটের বয়সে। সেই পাইলটের বয়স মাত্র ৫ বছর। যে বয়েসে খেলনা প্লেনও অনেকেই চালাতে পারে না। সেই ৫ বছর বয়েসেই আস্ত একটা প্লেন দক্ষতার সঙ্গে চালাল হি আইদে, ডাক নাম দুদু (বাংলায় যাকে দুষ্টু বলে)। দুদুই এখন বিশ্বের কনিষ্ঠতম পাইলট। কদিনের মধ্যেই গিনিস বুক ওয়ার্ল্ডে উঠতে চলেছে দুদুর নাম।

Updated: Sep 3, 2013, 04:47 PM IST

বেজিং ওয়াল্ডলাইফ পার্কের ওপর দিয়ে উড়ে গেল প্লেনটা। গত ৩১ অগাস্ট ৩৫ মিনিট ধরে আকাশে চক্কর কাটল সেটা। অবাক করা কথাটা হল পাইলটের বয়সে। সেই পাইলটের বয়স মাত্র ৫ বছর। যে বয়েসে খেলনা প্লেনও অনেকেই চালাতে পারে না। সেই ৫ বছর বয়েসেই আস্ত একটা প্লেন দক্ষতার সঙ্গে চালাল হি আইদে, ডাক নাম দুদু (বাংলায় যাকে দুষ্টু বলে)। দুদুই এখন বিশ্বের কনিষ্ঠতম পাইলট। কদিনের মধ্যেই গিনিস বুক ওয়ার্ল্ডে উঠতে চলেছে দুদুর নাম।
বেজিংয়ের বিমান প্রশিক্ষণ কেন্দ্রে কয়েকদিন আগেই ভর্তি হয়েছিল দুদু। আজ সেই দুদুর কীর্তিতেই অবাক গোটা দুনিয়া। হিসাব বলছে মোট ৩০ কিলোমিটার প্লেন চালিয়েছে সে। শুধু চালানো নয় যে কোনও বড় মানুষের চেয়েও প্লেন চালোনায় দক্ষতার পরিচয় দিয়েছে সে।
গত বছরেই দুদু একটা কাণ্ড ঘটিয়েছিল। যে কাণ্ড দেখতে ইন্টারনেট দুনিয়া একেবারে হামলে পড়েছিল। ইউটিউবে আপলোড করার ভিডিও দেখানো হয়েছিল -১৩ ডিগ্রি সেলসিয়াসে খালি গায়ে দৌড়াচ্ছে দুদু।
দুদুর এই কীর্তিকলাপের পিছনে তার বাবা। ভালবেসে দুদুর বাবাকে সবাই ডাকে `ঈগল ড্যাড` বলে। দুদুর মধ্যে অ্যাডভ্যাঞ্চার, সাহস সব তিনিই ঢুকিয়েছেন। শিখিয়েছেন আলাদা কিছু করতে হলে সবার আগে লাগে সাহস। আর লাগে ইচ্ছা, অনেক অনেক ইচ্ছা। তবে কখনই সেটা জোর করে নয়।