‘চোখ খোলো কুলসুম’ স্ত্রীর সঙ্গে নওয়াজের শেষ সাক্ষাতের ভিডিও ভাইরাল

গতকাল লন্ডনের হাসাপাতালে মৃত্যু হয় নওয়াজ়ের স্ত্রী কুলসুমের। এই খবর আসার পরই কুলসুমের শেষকৃত্য সম্পন্ন করতে নওয়াজ়, মেয়ে মরিয়ম এবং জামাই অবসরপ্রাপ্ত ক্যাপ্টেন মহম্মদ সফদরকে প্যারলে মুক্তি দিয়েছে  রাওয়ালপিন্ডির আদিয়াল জেল কর্তৃপক্ষ

Updated: Sep 12, 2018, 03:27 PM IST
‘চোখ খোলো কুলসুম’ স্ত্রীর সঙ্গে নওয়াজের শেষ সাক্ষাতের ভিডিও ভাইরাল
ফাইল চিত্র

নিজস্ব প্রতিবেদন: ‘চোখ খোলো কুলসুম’, সেই শেষ কথা। নওয়াজ়ের এই অনুরোধ যে শয্যাশায়ী তাঁর স্ত্রী বুঝেছিলেন, এমনটাও নয়। তবুও, ‘আল্লাহর’ উপর সব ছেড়ে দিয়ে মেয়ে মরিয়মকে নিয়ে পাকিস্তানে চলে আসেন প্রাক্তন পাক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ় শরিফ। তা-ও নয় নয় করে দু’মাস হয়ে গেল। গত ১৩ জুলাই পাকিস্তানে পৌঁছাতেই নওয়াজ় এবং তাঁর কন্যাকে গ্রেফতার করে পুলিস। তাঁরা এখন জেলেই রয়েছেন।

আরও পড়ুন- ভয়ঙ্কর আশঙ্কার মুখে রাফালহীন ভারত, উদ্বিগ্ন বায়ুসেনা প্রধান

গতকাল লন্ডনের হাসাপাতালে মৃত্যু হয় নওয়াজ়ের স্ত্রী কুলসুমের। এই খবর আসার পরই কুলসুমের শেষকৃত্য সম্পন্ন করতে নওয়াজ়, মেয়ে মরিয়ম এবং জামাই অবসরপ্রাপ্ত ক্যাপ্টেন মহম্মদ সফদরকে প্যারলে মুক্তি দিয়েছে  রাওয়ালপিন্ডির আদিয়াল জেল কর্তৃপক্ষ। তবে, স্ত্রীর সঙ্গে  নওয়াজ়ের সেই শেষ সাক্ষাতের ভিডিও ইতিমধ্যেই প্রকাশ্যে এসেছে।

ভিডিও দেখা গিয়েছে, শয্যাশায়ী স্ত্রীর কাছে কাতর অনুরোধে বিদায় জানাচ্ছেন নওয়াজ়। স্ত্রী কুলসুমকে এক বার চোখ মেলে তাকানোর অনুরোধ করেন তিনি। যদিও তাঁর ডাকে সাড়া দিতে দেখা যায়নি বেগম কুলসুমকে। শেষে নওয়াজ় বলেন, “আল্লাহ, তোমায় শক্তি দিক, তাড়াতাড়ি সুস্থ হয়ে ওঠো।” প্রাক্তন পাক প্রধানমন্ত্রীর এমন বিরল ভিডিও দেখে রীতিমতো বিহ্বল সোশ্যাল মিডিয়াও।

আরও পড়ুন- বন্ধুত্ব চুকিয়ে কি যুদ্ধের পথে বিজেপি-বিজেডি?

২০১৭ সালে অগস্ট থেকে জটিল রোগে আক্রান্ত হয়ে লন্ডন হাসপাতলে ভর্তি ছিলেন বেগম কুলসুম। গত জুনে শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় ভেন্টিলেশনে চলে যান। উল্লেখ্য, বেগম কুলসুম প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীর স্ত্রী হওয়ার সুবাদে রাজনৈতিক পরিসরে দেখা গিয়েছে তাঁকে। ২০১৭ সালে লাহোরের এক উপনির্বাচনে পাকিস্তান মুসলিম লিগ (নওয়াজ়)-র হয়ে প্রথমবার নির্বাচনে দাঁড়িয়েছিলেন।

জুলাইয়ে, হিসাব বহির্ভূত সম্পত্তি মামলায় নওয়াজ় এবং তাঁর কন্যা মরিয়ম শরিফকে দোষী সাব্যস্ত করে পাক অ্যাকাউন্টাবিলিটি আদালত। নওয়াজ়কে ১০ বছরের জেল এবং ৮০ লক্ষ ডলার জরিমানা করা হয়। ৮ বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয় মরিয়মকে। 

By continuing to use the site, you agree to the use of cookies. You can find out more by clicking this link

Close