ছোট্ট জাইনাবের শাস্তি প্রার্থনায় সন্তানকে কোলে নিয়ে সংবাদ পাঠ অ্যাঙ্করের

প্রসঙ্গত, ৪ জানুয়ারি পাকিস্তানের পঞ্জাব প্রদেশের কসৌর-এ কাকার বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয় ৭ বছরের শিশুকন্যা। অপহরণ করা হয়েছে বলে পুলিসের কাছে অভিযোগ জানায় পরিবার।

Updated: Jan 12, 2018, 11:17 AM IST
ছোট্ট জাইনাবের শাস্তি প্রার্থনায় সন্তানকে কোলে নিয়ে সংবাদ পাঠ অ্যাঙ্করের
ছবি- সোশ্যাল মিডিয়া

নিজস্ব প্রতিবেদন: আরও এক নির্ভয়া! এবার প্রতিবেশী দেশ পাকিস্তানে। মাত্র সাত বছরের মেয়েকে অপরহণের পর ধর্ষণ করে খুন, পাশবিকতার নজির গড়ে আস্তাকুঁড়ে ফেলে দিয়ে গিয়েছিল ফুটফুটে ওই শিশুর নিথর দেহ। ঘটনার প্রতিবাদে গোটা দেশ যখন উত্তাল তখন টিভির পর্দায় অভিনব প্রতিবাদ জানালেন এক সংবাদ পাঠিকা। নিজের শিশু কন্যাকে লাইভ অনুষ্ঠানে বসিয়ে প্রশ্ন তুললেন এক মায়ের কষ্ট দেশ কি বুঝতে পারছে?

প্রসঙ্গত, ৪ জানুয়ারি পাকিস্তানের পঞ্জাব প্রদেশের কসৌর-এ কাকার বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয় ৭ বছরের শিশুকন্যা। অপহরণ করা হয়েছে বলে পুলিসের কাছে অভিযোগ জানায় পরিবার। শেষে ৯ দিন পর আবর্জনা স্তূপ থেকে উদ্ধার করা হয় জাইনাবের দেহ। এই ঘটনায় পুলিস এবং প্রশাসনের বিরুদ্ধে গড়িমসি করার অভিযোগ ওঠে। ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসতেই দাবানলের মতো বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে দেশেজুড়ে। এই ঘটনায় তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন খেলোয়াড়, অভিনেতা-অভিনেত্রী থেকে সেদেশের বিশিষ্টরা।

এই সেই ছোট্ট জাইনাব

আরও পড়ুন- বিয়ের ১৮ ঘণ্টা পরই ক্যান্সারে মৃত্যু নববধূর

তবে, পাক খবরের চ্যানেল 'সামা'-র ওই অ্যাঙ্কর কিরণ নাজের প্রতিবাদ নজর কড়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। সোশ্যাল দুনিয়ায় মুহূর্তের মধ্যে ভাইরাল হয় তাঁর বক্তব্য। অভিযুক্তদের শাস্তির দাবিতে #JusticeForZainab-এ সোচ্চার হন লক্ষ লক্ষ মানুষ।

টেলিভিশনে সংবাদ পাঠের আগে কিরণ বলেন, "আজ একজন মা হয়ে এসেছি। সন্তানকে সামনে রেখে জানাতে চাই সন্তানহারা মায়ের কতটা কষ্ট।" তাঁর মর্মস্পর্শী কথায় আবেগে ভেসেছে সোশ্যাল মিডিয়া। কিরণ বলেন, যারা জাইনাবের সঙ্গে এমন কাজ করেছে, তাদের শাস্তি দিতে কোনও আইন, কমিশন, সুয়োমোটো-র দরকার নেই। একদিন কবর থেকে জাইনাবই নিজেই উঠে তাদের প্রশ্ন করবে, কী দোষে আমায় মারলে তোমরা? সেদিনই সব যোগ্য শাস্তি হবে ওদের।"

আরও পড়ুন- ২০১৮-য় ৫০ হাজার রোহিঙ্গা শিশু জন্ম নেবে বাংলাদেশে!