তৃণমূলে মোর্চাকর্মীরা, দূরত্ব বাড়ছে তৃণমূল-মোর্চার?

তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিলেন গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার বেশ কয়েকজন কর্মী। কাল কার্শিয়াংয়ের পানিঘাটায় এক সভায় উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী গৌতম দেবের উপস্থিতিতে তাঁরা তৃণমূলে যোগ দেন। কয়েকজন জিএনএলএফ সদস্যও তৃণমূলে যোগদান করেন।

Updated: Jun 12, 2012, 12:44 AM IST

তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিলেন গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার বেশ কয়েকজন কর্মী। কাল কার্শিয়াংয়ের পানিঘাটায় এক সভায় উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী গৌতম দেবের উপস্থিতিতে তাঁরা তৃণমূলে যোগ দেন। কয়েকজন জিএনএলএফ সদস্যও তৃণমূলে যোগদান করেন। মনে করা হচ্ছে, পাহাড়ে সংগঠন বিস্তারের লক্ষ্যেই এই উদ্যোগ নিয়েছে তৃণমূল। যদিও এর ফলে মোর্চার সঙ্গে তৃণমূলের দূরত্ব আরও বাড়বে বলেই অনুমান।
জিটিএ এবং শ্যামল সেন কমিটির রিপোর্ট ঘিরে মোর্চার সঙ্গে তৃণমূলের দূরত্ব বেড়েছে। পাহাড়ে জমি শক্ত করতে বেশ কিছুদিন ধরেই তাই এলাকার অন্যান্য রাজনৈতিক দলের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছিল তৃণমূল কংগ্রেসের জেলা নেতৃত্ব। কিন্তু এবার সরাসরি মোর্চার সংগঠনেই ফাটল ধরল।
কার্শিয়াংয়ের পানিঘাটায় এক সভায় তরাইয়ের বহু মোর্চা সমর্থক আনুষ্ঠানিকভাবে যোগ দিলেন তৃণমূলে। সভা মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন মন্ত্রী গৌতম দেব। তাঁর উপস্থিতিতেই মোর্চা কর্মীরা তৃণমূলে যোগদান করেন। মন্ত্রীর কথাতেই স্পষ্ট, পাহাড়ে দলীয় সংগঠনকে শক্ত করাই তাঁদের লক্ষ্য। তবে যেভাবে মোর্চা থেকে বেড়িয়ে এত জন কর্মী-সমর্থক তৃণমূলে যোগ দিলেন, তাতে দু`দলের মধ্যে দূরত্ব আরও বাড়বে বলেই অনুমান রাজনৈতিক মহলের।