সেন্সরের চোখ রাঙানিতে সাহেব, বিবি অওর গ্যাংস্টার রিটার্নস

সাহেব, বিবি অওর গ্যাংস্টার রিটার্নসকে `এ` সার্টিফিকেট দিল ভারতীয় সেন্সর বোর্ড। তিঘমাংশু ধুলিয়ার ছবি সাহেব, বিবি অ্যান্ড গ্যাংস্টার রিটার্নস ২০১১ সালে মুক্তি পাওয়া সাহেব, বিবি অ্যান্ড গ্যাংস্টারের সিক্যোয়েল। অতিরিক্ত যৌনতা প্রদর্শনের জন্য বিতর্কের মুখে পড়েছিল সাহেব, বিবি অওর গ্যাংস্টার।

Updated: Mar 6, 2013, 05:28 PM IST

সাহেব, বিবি অওর গ্যাংস্টার রিটার্নসকে `এ` সার্টিফিকেট দিল ভারতীয় সেন্সর বোর্ড। তিঘমাংশু ধুলিয়ার ছবি সাহেব, বিবি অ্যান্ড গ্যাংস্টার রিটার্নস ২০১১ সালে মুক্তি পাওয়া সাহেব, বিবি অ্যান্ড গ্যাংস্টারের সিক্যোয়েল। অতিরিক্ত যৌনতা প্রদর্শনের জন্য বিতর্কের মুখে পড়েছিল সাহেব, বিবি অওর গ্যাংস্টার। তবে সিক্যোয়েলে নাকি অনেক কম যৌনতা প্রদর্শন করেছেন তিঘমাংশু। কাজেই ছবির এ সার্টিফিকেটে যথেষ্টই ক্ষুব্ধ অভিনেতা-অভিনেত্রীরা।
বোর্ডের সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ সোহা আলি খান এ দিন বলেন, "আমি সাহেব, বিবি অওর গ্যাংস্টার দেখেছি। আমার যথেষ্ট সাহসী মনে হয়েছে। যৌনতা প্রদর্শন একটু বেশি মাত্রায় হয়েছিল ঠিকই, তবে তিঘমাংশু সিক্যোয়েলে যৌনতার মাত্রা অনেক কমিয়ে এনেছে। আমরা কখনই চাই না এই ছবিকে এ সার্টিফিকেট দেওয়া হোক। এটা খুবই দুঃখজনক যে সাহেব, বিবি অওর গ্যাংস্টার রিটার্নস `এ` সার্টিফিকেট পেয়েছে। ছবিটিতে যৌনতার বাইরেও প্রচুর সেনসুয়ালিটি রয়েছে। চুম্বন বা শয্যাদৃশ্য একটি ছবিকে সাহসী করে না। ছবির চরিত্ররাই সাহসী।"
সোহা আলি খান ছাড়াও ছবিতে রয়েছেন জিমি শেরগিল, ইরফান খান ও মাহি গিল। আগামী ৮ মার্চ মুক্তি পাচ্ছে সাহেব, বিবি অওর গ্যাংস্টার রিটার্নস।