বাইক মিছিল বন্ধের সিদ্ধান্ত বিজেপির, রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসনের দাবি দিলীপের

বারংবার হামলার মুখে পড়ে বাইক মিছিল বন্ধের সিদ্ধান্ত নিল বিজেপি। বিজেপির অভিযোগ, আদালতের নির্দেশ সত্ত্বেও বাইক মিছিলে প্রশাসন নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ। পাশাপাশি রাজ্যে অবিলম্বে রাষ্ট্রপতি শাসন জারির দাবি জানালেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

Updated: Jan 12, 2018, 01:04 PM IST
বাইক মিছিল বন্ধের সিদ্ধান্ত বিজেপির, রাজ্যে রাষ্ট্রপতি শাসনের দাবি দিলীপের

নিজস্ব প্রতিবেদন : বারংবার হামলার মুখে পড়ে বাইক মিছিল বন্ধের সিদ্ধান্ত নিল বিজেপি। বিজেপির অভিযোগ, আদালতের নির্দেশ সত্ত্বেও বাইক মিছিলে প্রশাসন নিরাপত্তা দিতে ব্যর্থ। পাশাপাশি রাজ্যে অবিলম্বে রাষ্ট্রপতি শাসন জারির দাবি জানালেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ।

দিলীপ ঘোষ বলেন, আদালতের নির্দেশ সত্ত্বেও প্রশাসন নিরাপত্তা দিতে না পারার কারণে মিছিল বন্ধ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বদলে গণতন্ত্র রক্ষার দাবিতে গান্ধীমূর্তির পাদদেশে অবস্থান করবে বিজেপি। হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ মিছিলের অনুমোদন দেওয়া সত্ত্বেও, বারংবার হামলার ঘটনায় বিজেপি নেতৃত্ব ফের আদালতে যাওয়ার ব্যাপারে ভাবনাচিন্তা করছে বলেও জানিয়েছেন বিজেপি রাজ্য সভাপতি।

উল্লেখ্য ১১ জানুয়ারি থেকে ১৮ জানুয়ারি পর্যন্ত সপ্তাহব্যাপী কাঁথি থেকে কোচবিহার পর্যন্ত সংকল্প যাত্রার পরিকল্পনা নেয় বিজেপি যুব মোর্চা। প্রথমে পুলিস সেই মিছিলের অনুমতি দেয়নি। এরপরই হাইকোর্টে মিছিলের অনুমতি চেয়ে আবেদন করে বিজেপি। আবেদনের প্রেক্ষিতে প্রথমে হাইকোর্টের সিঙ্গল বেঞ্চ অনুমোদন দেয় বাইক মিছিলকে। বৃহস্পতিবার শর্তসাপেক্ষে সেই রায়ই বহাল রাখার কথা জানায় হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ।

কিন্তু আদালতের অনুমতি সত্ত্বেও বার বার বিজেপি কর্মীদের উপর তৃণমূল কর্মীরা হামলা চালায় বলে অভিযোগ। প্রসঙ্গত, পোস্তা এলাকায় গেস্টহাউসের মধ্যে ঢুকে বিজেপি কর্মীদের মারধরের অভিযোগ ওঠে তৃণমূলের বিরুদ্ধে। বিজেপি-তৃণমূল সংঘর্ষে রণক্ষেত্রের চেহারা নেয় জোড়াবাগান এলাকা। বাঁশ, লাঠি নিয়ে একে অপরের উপর হামলা চালায়। ইটবৃষ্টিও করা হয় বলে অভিযোগ।

আরও পড়ুন, ভাঙচুর, হাতাহাতি; বিজেপি-তৃণমূল সংঘর্ষে রণক্ষেত্র জোড়াবাগান

এমনকি বাইকের চাকা থেকে হাওয়া খুলে নেওয়ারও অভিযোগ করে বিজেপি নেতৃত্ব। নির্ধারিত সময় সকাল ১০টার পরিবর্তে বেশকিছুটা দেরিতেই শুরু হয় বাইক মিছিল। কিন্তু মিছিল বেরিয়ে যেতেই বিজেপির সদর দফতরে ফের লাঠিসোটা নিয়ে হামলার অভিযোগ ওঠে। উত্তেজনা ছড়ায় সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউয়ে।

আরও পড়ুন, পোস্তায় গেস্টহাউসে ঢুকে বিজেপি কর্মীদের মারধরের অভিযোগ তৃণমূলের বিরুদ্ধে

বিজেপির অভিযোগ, বার বারই রাজ্যে বিরোধীদের কর্মসূচিকে বাধা দেওয়া হচ্ছে। মেরে যুব মোর্চা সভাপতির পা ভেঙে দেওয়া হয়েছে বলেও অভিযোগ। অভিযোগ, আহত হয়েছেন স্পেশাল অফিসারও। এই পরিস্থিতিতে শেষপর্যন্ত বাইক মিছিল বন্ধের সিদ্ধান্ত নিল বিজেপি।