সারদাকে কোম্পানি বেচতে প্রভাবিত করেছিলেন শুভাপ্রসন্ন

নিজের মালিকানাধীন ঋণগ্রস্ত একটি সংস্থা বিপুল টাকায় সারদা গোষ্ঠীকে কিনে নিতে বাধ্য করেছিলেন চিত্রশিল্পী শুভাপ্রসন্ন। এমনই অভিযোগ উঠেছে শিল্পীর বিরুদ্ধে। ২০০৯ সালে দেবকৃপা নামে একটি সংস্থা কেনেন  শুভাপ্রসন্ন। কিন্তু মাস কয়েকের মধ্যেই কার্যত নিলামে ওঠার দশা হয় ওই সংস্থার। অভিযোগ, রাজনৈতিক প্রভাব খাটিয়ে কয়েক কোটি টাকায়  সারদা গোষ্ঠীকে সেই সংস্থা বিক্রি করেন শুভাপ্রসন্ন। 

Updated: Apr 26, 2013, 10:53 PM IST

নিজের মালিকানাধীন ঋণগ্রস্ত একটি সংস্থা বিপুল টাকায় সারদা গোষ্ঠীকে কিনে নিতে বাধ্য করেছিলেন চিত্রশিল্পী শুভাপ্রসন্ন। এমনই অভিযোগ উঠেছে শিল্পীর বিরুদ্ধে। ২০০৯ সালে দেবকৃপা নামে একটি সংস্থা কেনেন  শুভাপ্রসন্ন। কিন্তু মাস কয়েকের মধ্যেই কার্যত নিলামে ওঠার দশা হয় ওই সংস্থার। অভিযোগ, রাজনৈতিক প্রভাব খাটিয়ে কয়েক কোটি টাকায়  সারদা গোষ্ঠীকে সেই সংস্থা বিক্রি করেন শুভাপ্রসন্ন। 
সিবিআইকে লেখা চিঠিতে সারদা কর্ণধার সুদীপ্ত সেন অভিযোগ করেছিলেন রাজনৈতিক প্রভাব খাটিয়ে আর্থিকভাবে দুর্বল সংস্থা তাঁকে কিনতে বাধ্য করেছিলেন তৃণমূলের প্রভাবশালী ব্যক্তিত্বরা। এবার অভিযুক্ত ব্যক্তিত্বদের তালিকায় উঠে এল চিত্রশিল্পী শুভাপ্রসন্নর নামও।
 
তথ্য বলছে, ২০০৯ সালে দেবকৃপা নামে একটি সংস্থা কেনেন শুভাপ্রসন্ন। সংস্থার ডিরেক্টর ছিলেন তিনি ও তাঁর মেয়ে জোনাকি ভট্টাচার্য। বাজার থেকে দেদার টাকা ঋণও নেওয়া হয় সংস্থার তরফে। চ্যানেল গড়ার জন্য প্রস্তুতি নেয় সংস্থা। প্রথম দফায় যুক্ত ছিলেন তৃণমূল নেত্রী দোলা সেনও। অভিযোগ, পরে প্রকল্প থেকে  তিনি নিজেকে সরিয়ে নিলে বিপুল ঋণের বোঝা চাপে শুভাপ্রসন্নর ওপর। কিন্তু প্রভাব খাটিয়ে পরিস্থিতি সামাল দেন তৃণমূল ঘনিষ্ঠ এই চিত্রশিল্পী। দুহাজার বারো সালে প্রায় সাড়ে ছ কোটি টাকায় কার্যত অচল এই সংস্থা কিনে নেয় সারদা গোষ্ঠী। কিন্তু প্রায় বন্ধ হয়ে যাওয়া এই সংস্থা সারদা কিনল কেন? উঠছে সে প্রশ্ন।
 
সুদীপ্ত সেনের অভিযোগই কি তাহলে সত্যি? সাধারণ মানুষের টাকায় তৃণমূলের কয়েকজন প্রভাবশালী ব্যক্তিকে খুশি করতেই কী অলাভজনক সংস্থায় বিনিয়োগ করতে বাধ্য হন সারদা গোষ্ঠীর কর্ণধার।