১৪ জন মেয়েকে ধর্ষণ হোস্টেল ওয়ার্ডেনের, স্কুলের পাঁচিল টপকে অভিযোগ পুলিসে

সবাই ভয় পেত ওকে। মেয়েরা ওর নাম দিয়েছিল ওর নাম দিয়েছিল ভয়কাকু। অরুণাচল প্রদেশের এক বেসরকারি স্কুলের হোস্টেলের ওয়ার্ডন হিসাবে সেই ভয়কাকুরই এক অপকীর্তির কথা ফাঁস হল। অরুণাচলের লিকাবালির পশ্চিম সিয়াং প্রদেশের সেই বেসরকারি স্কুলের হোস্টেল ওয়ার্ডন ১৪ জন মেয়েকে ধর্ষণ করেছে। গত তিন বছর ধরে যে ১৪ জন মেয়েক ধর্ষণ করেছে সেই ওয়ার্ডন। ধর্ষিতা হওয়া সেইসব মেয়েদের বয়স ৪ থেকে ১৩ বছর।

Updated: Aug 28, 2013, 03:14 PM IST

সবাই ভয় পেত ওকে। মেয়েরা ওর নাম দিয়েছিল ভয়কাকু। অরুণাচল প্রদেশের এক বেসরকারি স্কুলের হোস্টেলের ওয়ার্ডেন হিসাবে কাজ করা সেই 'ভয়কাকু'-রই এক অপকীর্তির কথা ফাঁস হল। অরুণাচলের লিকাবালির পশ্চিম সিয়াং প্রদেশের সেই বেসরকারি স্কুলের হোস্টেল ওয়ার্ডেন ১৪ জন মেয়েকে ধর্ষণ করেছে। গত তিন বছর ধরে যে ১৪ জন মেয়েক ধর্ষণ করেছে সেই ওয়ার্ডন। ধর্ষিতা হওয়া সেইসব মেয়েদের বয়স ৪ থেকে ১৩ বছর।
আরও অবাক করা কথা হল ওয়ার্ডন ভয়কাকু তাদের ধর্ষণ করেছে, এমন কথা প্রিন্সিপালকে জানানোর পরেও কোনও পদক্ষেপ নেননি। বরং সেই নাবালিকাদের পুলিসের কাছে যেতে বারণ করে। এমনকি পুলিসের কাছে গেলে তাদের কড়া শাস্তিও দেওয়া হবে বলে হুমকি দেওয়া হয়। সাহস করে স্কুলের পাঁচিল টপকে পুলিসের কাছে এসে তাদের কথা জানায় সেইসব বালিকারা।

Tags: