এলাহাবাদে পদপিষ্ট হয়ে মৃত ৩৬, তদন্তের নির্দেশ

এলাহাবাদে পদপিষ্ট হয়ে মৃত ৩৬, তদন্তের নির্দেশ

এলাহাবাদে পদপিষ্ট হয়ে মৃত ৩৬, তদন্তের নির্দেশ এলাহাবাদ রেল স্টেশনে পদপিষ্ট হয়ে মৃত্যু হল কমপক্ষে ৩৬ জনের । হাসাপাতালে চিকিত্‍সাধীন ৪০ জন, তার মধ্যে ১৫ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। রবিবার সন্ধে সাতটা নাগাদ কুম্ভ মেলা থেকে বাড়ি ফেরার জন্য এলাহাবাদ স্টেশনে ট্রেন ধরতে হুড়োহুড়ি পড়ে যায়। অভিযোগ, ভিড় সামলাতে লাঠিচার্জ করে পুলিস। এর জেরেই পদপিষ্টের ঘটনা ঘটে বলে অভিযোগ। মৃতদের পরিবারপিছু পাঁচ লক্ষ টাকা এবং আহতদের এক লক্ষ টাকা করে ক্ষতিপূরণ ঘোষণা করেছে উত্তরপ্রদেশ সরকার। ঘটনায় শোকপ্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং। দুর্ঘটনাগ্রস্থতের আর্থিক ক্ষতিপূরণের আশ্বাস দিয়েছেন তিনি।  

কুম্ভে স্নান সেরে রবিবার সন্ধ্যায় ফিরে যাচ্ছিলেন অসংখ্য মানুষ। লোকে লোকারণ্য এলাহাবাদের স্টেশন চত্বর। তিল ধারণের জায়গা ছিল না। ট্রেনের ঘোষণা হতেই ছয় নম্বর প্ল্যাটফর্মের দিকে দৌড় শুরু করেন অসংখ্য মানুষ। তাড়াহুড়োর জেরেই দুর্ঘটনা ঘটে।
 
যাত্রীরা যখন ট্রেন ধরতে যাচ্ছিলেন, তখন ভিড় সামাল দিতে পুলিস লাঠিচার্জ করে বলে অভিযোগ। যদিও রেলের তরফে এই অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে। ঘটনার পরই ছয় নম্বর প্ল্যাটফর্ম সিল করে দেওয়া হয়। রেলের বিরুদ্ধে গাফিলতি অভিযোগ উঠেছে। কারণ ঘটনার পর দু`ঘণ্টা কেটে গেলেও রেলের তরফে কোনও ব্যবস্থাই নেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ। এই অভিযোগ স্বীকার করে নিয়ে উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দিয়েছেন রেলমন্ত্রী পবনকুমার বনশাল।
 
ঘটনার তদন্তে রেলের রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে কমিটি গঠন হয়েছে। তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে উত্তরপ্রদেশ সরকারও। রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী অখিলেশ যাদব ঘটনায় শোকপ্রকাশ করেছেন। রাজ্যের উচ্চপদস্থ আধিকারিকদের ঘটনার ওপর নজর রাখতে বলা হয়েছে। ঘটনার জন্য রেলের ওপরই দায় চাপিয়েছে শাসক দল সমাজবাদী পার্টি। ঘটনার তদন্ত এবং   দুর্ঘটনাগ্রস্তদের দ্রুত ক্ষতিপূরণের দাবিতে সরব বিজেপি নেতৃত্ব।
 
প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং ঘটনায় শোকপ্রকাশ করেছেন। দুর্ঘটনাগ্রস্তদের ক্ষতিপূরণের আশ্বাস দেওয়ার পাশাপাশি তাঁদের সহযোগিতার জন্য রেলমন্ত্রককে নির্দেশ দিয়েছেন তিনি। এছাড়াও উত্তরপ্রদেশ সরকারকে সাহায্যের জন্য কেন্দ্রীয় সরকারের সমস্ত মন্ত্রককেই নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। শোকপ্রকাশ করেছেন কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধীও।
 

First Published: Monday, February 11, 2013, 10:07


comments powered by Disqus